September 19, 2018

ভেদরগঞ্জে বিএনপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, ভাংচুর

ঢাকাঃ

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার ছয়গাঁও উইনয়নের বিএনপির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়ীতে আওয়ামী লীগের চেয়াম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় হামলাকারীরা ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরে থাকা টিভি, ফ্রিজ ভাংচুরসহ আসবাবপত্র ভাংচুর, তছনছ করেছে বলেও অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের। তবে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বলছেন তার কোন সমর্থকরা হামলা করেনি।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী কামরুল হাসান ভুট্টোর ভাই মঞ্জুরুল ইসলাম লিয়াকত মজুমদার জানান, আগামী ৩১ অক্টোবর শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার ছয়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের অনুষ্ঠিত হবে। এতে আওয়ামী লীগের মনোনীন প্রার্থী মীর মামুন আর বিএনপির মনোনীত প্রার্থী কামরুল হাসান ভুট্টো মজুমদার ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে লিটন মোল্লা প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে মীর মামুনের শতাধিক সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে কামরুল হাসান ভুট্টো মজুমদারের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে ঘরে থাকা টিভি, ফ্রিজ, আসবাবপত্র ভাংচুর ও তছনছ করে। এ ছাড়াও মাসুদ মজুমদার ও ফেরদৌসি মজুমদারের ঘরসহ ৬টি ঘর কুপিয়ে ভাংচুর ও তছনছ করে। এতে প্রায় ৭/৮ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

খবর পেয়ে ভেদরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ সময় কামরুল হাসান ভুট্টো মজুমদার বাড়ীতে ছিলেন না। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর বড় ভাই মাহমুদ হাসান মজুমদার বলেন, “আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মীর মামুনের শতাধিক সমর্থকরা নৌকার শ্লোগান দিতে দিতে দেশিয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তারা ঘরের বাইরে থাকা সিকিউরিটি লাইট এবং বিদ্যুতের মিটার ভেঙ্গে ফেলে। চেয়ারম্যানের ঘর ও মাসুদ মজুমদারের ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে ঘরে থাকা সব কিছু ভেঙ্গে ফেলে এবং তছনছ করে।”

আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মীর মামুন বলেন, “আমার কোন কর্মী-সমর্থকরা বিএনপি প্রার্থীর বাড়িতে হামলা করেনি। কে বা কারা হামলা করেছে আমার জানা নেই।”

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মেহেদী হাসান বলেন, “ভাংচুরের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করি। তবে বাড়ীতে থাকা লোকজন বলতে পারেনি কারা ভেঙেছে। এখনো আমাদের কাছে কোন অভিযোগ করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।”

Related posts