September 20, 2018

বড় ভূমিকম্প ঘটবে, ১০ লক্ষাধিক মৃত্যুর আশঙ্কা!

ঢাকাঃ ১০লাখের বেশি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা আছে। একজন বিখ্যাত ব্রিটিশ ভূতাত্ত্বিক গবেষক এমন আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

বড় ভূমিকম্প কোথায় ঘটবে তা নিয়ে একমত নন বিশেষজ্ঞরা। কেউ বলেছেন ভূমিকম্প ঘটবে উত্তর আমেরিকা মহাদেশের কোনো স্থানে। নিউইয়র্ক শহরও ভূকম্পের আশঙ্কামুক্ত নয়। আবার অনেকে বলছেন, ইরানের তেহরান ও নেপালের কোনো স্থানে ভূমিকম্পের বড় আশঙ্কা আছে। আবার অনেক ভূতাত্ত্বিকের মতে, বড় ভূমিকম্পে সুনামি দেখা দিতে পারে যা হবে ৭০০ মাইল দীর্ঘ। এই সুনামি ঘটতে পারে আমেরিকা মহাদেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল, অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায়।

বেশ কিছুদিন আগেই ভূতাত্ত্বিকরা জানিয়েছিলেন, উত্তর আমেরিকায় পশ্চিম উপকূলে বড় ধরনের ভূমিকম্পের আশঙ্কা আছে। এই দুর্যোগে অঞ্চলটির বড় একটি অংশ ধ্বংস হতে পারে। এই গবেষকদের মতে, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে উত্তর আমেরিকার পশ্চিম উপকূলে এক হাজারের বেশি ভূমিকম্প হয়েছে। এই ভূমিকম্পের সর্বনিম্নটি ছিল রিখটার স্কেলে ৪ দশমিক ৪ মাত্রার। মাত্র দুদিন আগেও ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেস ৪ দশমিক ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয়েছে।

‘দ্য মিলিয়ন ডেথ কোয়েকঃ দ্য সায়েন্স অব প্রেডিক্টিং আর্থস ডেডলিয়েস্ট ন্যাচারাল ডিজাস্টার’ শীর্ষক বইয়ে ব্রিটিশ ভূতাত্ত্বিক রজার মাসন দাবি করেছেন, কেউ জানে না কখন ভূমিক্ম্প ঘটবে। তবে বড় ভূমিকম্প ঘটবেই। আর কোনো ভূতত্ত্ববিদই বড় ভূমিকম্পের সময় বলতে পারবেন না। কোনো পূর্বাভাস ছাড়াই ঘটতে পারে কোনো বড় ভূমিকম্প।

অনেক ভূতাত্ত্বিক উত্তর আমেরিকায় বড় ভূমিকম্পের আশঙ্কা করলেও রজার মাসন এ বিষয়ে ভিন্নমত পোষণ করেন। তাঁর মতে, ভূমিকম্পের আশঙ্কা বেশি নেপাল ও ইরানের তেহরানে।

যুক্তরাজ্যের সাময়িকী ডেইলি স্টারকে রজার মাসন বলেন, নেপালে গত বছরের ভূমিকম্পের কথা শোনার পরই এটি ভয়াবহ বলে মনে হয়েছিল তাঁর। পরে সংবাদমাধ্যমেই জানা যায়, এটি ছিল ভূমিকম্পের ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ। ভূমিকম্পের অপর আশঙ্কার অঞ্চল ইরানের তেহরান। এই অঞ্চলের ভূমির নিচের ‘ফল্ট লাইন’-এ দীর্ঘদিন কোনো পরিবর্তন হয়নি। যেকোনো সময় তেহরানে বড় ধরনের ভূমিকম্প হতে পারে।

রজার মাসন বলেন, ১০ লক্ষাধিকের মতো মানুষ মারা যাবে এমন ভূমিকম্প শিগগিরই ঘটবে এই বিষয়টি নিশ্চিত। তবে এখানে অনিশ্চয়তা ভূমিকম্পের স্থান নিয়ে। বিশ্বের কোন স্থানে এমন ভূমিকম্প ঘটবে তা ঘটনার আগ পর্যন্ত নিশ্চিত করে বলা যায় না।এনটিভি

Related posts