November 18, 2018

বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিকদের ধর্মঘট

551
মোঃ মেহেদী হাসান,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ  দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ৩য় ইউনিট এর শ্রমিকরা তাদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি, শ্রমিক নির্যাতন বন্ধ সহ ১০দফা দাবীতে গতকাল শুক্রবার থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ধর্মঘট শুরু করেছে।এদিকে শ্রমিকদের ধর্মঘটের ফলে বন্ধ হয়ে গেছে ৩য় ইউনিটের নির্মাণ কাজ।

আন্দোলনরত শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৩য় ইউনিট এর নির্মানাধীণ ঠিকাদারি প্রতিষ্টান (এনইপিসি) চীনা ন্যাশনাল ইঞ্জিনিয়ারিং মেশিনারী কোম্পানী তাদেরকে (বাঙ্গালী শ্রমিকদের) ৮ঘন্টার স্থলে ১০ঘন্টা করে কাজ করে নিলেও তাদের কোনো অতিরিক্ত বেতন দেয়া হয়না। তাদের কাজের সামান্য ত্রুটি হলেই, চীনা কর্মকর্তারা মারধর করে। প্রতিবাদ জানালে তাদেরকে চাকরীচ্যুত করা হয়। তারা আরো ও বলেন, চীনা ঠিকাদারের সহযোগী স্থানীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জহির ট্রেডার্স, আফতাব ট্রেডার্স ও মেসার্স লিটন , মেসার্স শফি প্রত্যেক শ্রমিকের নিকট থেকে ২০হাজার থেকে ২৫হাজার টাকা উৎকোচ গ্রহন করে এই কাজ দিয়েছে।

তাদের বেতন মাসিক ১৮হাজার থেকে ২০হাজার হলেও স্থানীয় জনবল সরবরাহকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানগুলো শ্রমিকদের দিচ্ছে মাত্র ৬হাজার থেকে ৭হাজার টাকা। যা দিয়ে তাদের পরিবার চলছেনা। শ্রমিকরা আরো জানায়, কথায় কথায় শ্রমিক ছাটাই করছে। কয়েকদিন আগেই শেরপুর গ্রামের নয়ন একই এলাকার বিশ্বজিৎ, পাতিগ্রামের বকুল, গাড়ী চালক কোরবান আলী, শ্রমিক জাহাঙ্গির আলম, আরিফুল ইসলাম, জাকির হোসেন, লিমন, সেকেন্দার আলী, আনারুল ইসলাম, জিয়ারুল ইসলাম, রশিদুলকে বিনা কারনে ছাঁটাই করেছে। গত বৃহঃস্পতিবার চায়না কর্মকর্তা মকবুল নামে এক শ্রমিককে সামান্য ত্রুটির কারনে মেরে আহত করেছে।

এভাবে প্রকল্পের শুরুতেই ৬শ জন শ্রমিক কাজ করলেও এখন করছে ৫শ জন। বাঁকী শ্রমিকদের ছাঁটাই করেছে। ফলে তাদের পিট এখন দেয়ালে ঠেকে গেছে। তাই কাজ বাদ দিয়ে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকেই তারা বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ ১০দফা দাবী বাস্তবায়নের দাবীতে আন্দোলনে নেমেছে। এ দাবী পুরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা কাজে ফিরবেনা এবং তাদেরকে বাদ দিয়ে অন্য কোনো শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে কাজ করতে গেলেও তারা সে কাজ করতে দিবেনা বলে ঘোষনা দিয়েছে। তাদের অন্যান্য দাবীগুলো হচ্ছে, শ্রমিক আইনঅনুযায়ী শ্রমিক অধিকার নিশ্চিতকরণ, বিনা কারনে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করা, শ্রমিকদের সাপ্তাহিক ছুটি প্রদান করা, প্রত্যেক শ্রমিকদের কর্মভেদে মাসিক ১৫হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা বেতন ভাতা প্রদান করা, আহত শ্রমিকদের চিকিৎসা ভাতা প্রদান, ,শ্রমিকরেশন চালুকরণ, শ্রমিকদের খাওয়ার পানি সরবরাহ করতে হবে এবং শ্রমিকদের দিয়ে নিন্মমানের কাজ করা বন্ধ করতে হবে।

এদিকে শ্রমিকদের দাবী বাস্তবায়নের জন্য বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ক্যাম্পাসে  সকাল থেকে তারা বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা করেন। পথসভায় বক্তব্য রাখেন শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের আহবায়ক মোঃ রমজান আলী, মোঃ সাদ্দাম হোসেন, মোঃ বেলাল হোসেন, মোঃ হাইকুল ইসলাম, মোঃ মাহাবুব আলম মোঃ রবিউল ইসলাম, মোঃ বুলবুল হোসেন ও মোঃ মহসীন আলী প্রমুখ। এ ব্যাপারে গতকাল শুক্রবার  ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধীকারী শ্রমিক নিয়োগের স্থানীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জহির ট্রেডার্স, আফতাব ট্রেডার্স ,মেসার্স লিটন ও মেসার্স শফির সাথে  কথা বললে গেলে তাদেরকে পাওয়া যায় নাই। তবে শ্রমিকেরা তাদের অধিকার আদায়ে আন্দোলন অব্যাহত রাখবে বলে জানান।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts