September 26, 2018

বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কর্মচারীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা


মেহেদী হাসান উজ্জল,
দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিক কর্মচারীদের আন্দোলন তীব্র হচ্ছে। তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিক কর্মচারীদের আন্দোলন অব্যাহত। নতুন কর্মসূচি ঘোষণা। সারাদেশের ন্যায় বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় রংপুর ও রাজশাহী বিতরণ জোনকে গোপনে কোম্পানীতে রূপান্তরিত করার প্রতিবাদে বিউবো শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদ এর ডাকে গত মঙ্গলবার থেকে শুরু করে গতকাল রবিবার ১০টায় তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রের প্রশাসনিক ভবনের সামনে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী কালো ব্যাচ ধারণ করে তাদের আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন। কর্মসূচি চলাকালীন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র অচল হয়ে পড়েছে। সকাল থেকে শ্রমিক কর্মচারীরা আন্দোলন অব্যাহত রাখতে কর্মবিরতি করেছেন। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে বিউবো শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ক. ৭ই আগস্ট ২০১৬ ইং তারিখে বিউবোর সাথে কোম্পানি করা চুক্তি বাতিলের দাবিতে কালো ব্যাচ ধারণ, গেট সভা ও বিক্ষোভ মিছিল। খ. ৮ই আগস্ট গেট সভা ও বিক্ষোভ মিছিল। গ. ৯, ১০ ও ১১ তারিখে বিউবোর সকল স্তরের শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তাদের গণছুটি। ঘ. ১৩, ১৪ আগস্ট গেট সভা ও বিক্ষোভ মিছিল। ঙ. ১৫ই আগস্ট ভাবগম্ভীর পরিবেশে সারাদেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন। চ. ১৬ই আগস্ট বিউবোর স্বাক্ষরিত চুক্তি বাতিল করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন কমূসূচি ঘোষণা করা হবে। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে প্রশাসনিক ভবনের সামনে প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ (সিবিএ ১৯০২) সভাপতি মোঃ জিল্লুর রহমান।

বক্তব্য রাখেন বিউবো শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা ও তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ (সিবিএ ১৯০২) সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাবিব হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আকবর আলী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাহীন, সিবিএ নেতা মোঃ ইসমাইল হোসেন, সিবিএ নেতা প্রকাশ কুমার, সিবিএ নেতা ফজলুল হক।

বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রের জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ (সিবিএ ১৯০২) এর সভাপতি জিল্লুর রহমান বলেন, বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান, সাধারণ জনগনকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তার সাথে সরকারের কোটি কোটি টাকা আয় বৃদ্ধি করছে। সেদিকে লক্ষ না রেখে হঠাৎ করে বেসরকারি খাতে হস্তান্তর করে শ্রমিক কর্মচারীদের ভবিষ্যৎকে নষ্ট করে দেওয়ার ষড়যন্ত্র মাত্র। এ জন্য ঢাকা সহ চট্টগ্রাম, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ্, কুমিল্লা, সিলেট, খুলনা সহ বোর্ডের সর্বত্র শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তারা শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ মিছিল সহ সভা সমাবেশ করে আসছেন।

গত ৪ঠা জুলাই ঢাকায় বিউবো শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদের প্রতিনিধি সভায় বিউবোর সাথে কোম্পানী করার চুক্তি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আমরা এই আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে যাব। আমাদের এই আন্দোলনের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত এবং নওজোপাডিকোর নিকট হস্তান্তর থেকে সরকার সরে না আসলে পরবর্তীতে সারাদেশব্যাপী সকল কর্মকর্তা কর্মচারী কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts