September 21, 2018

ব্যাক পেইনের ৮ কারণ

aবিনোদন ডেস্ক ::ব্যাক পেইন নিয়ে অস্বস্তিতে থাকেন অনেকেই। আপনি হয়তো নিজেও জানেন না আপনারই কিছু অভ্যাস ঘরে ডেকে আনছে এই বিড়ম্বনাকে। বিশেষ করে ৮ ধরনের বদভ্যাসের কারণে দেখা দেয় এই অনাকাঙ্ক্ষতি শারীরিক উৎপীড়ন।

দীর্ঘক্ষণ বসে থাকা
অনেকেই কাজের কারণে দিনের বেশিরভাগ সময় বসে কাটান। মানুষ বসে থাকলে শরীরের ৫০ শতাংশ ভার পড়ে পিঠের উপরে। তাই স্বাভাবিকের চেয়ে অতিরিক্ত মাত্রায় বসে থাকার কারণে দেখা দেয় ব্যাক পেইন। তাছাড়া বসে থাকলে শরীরে পেশীগুলো নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে, যার ফলে দেখা দেয় ব্যাক পেইন।

অতিরিক্ত খাবার
স্বাভাবিক মাত্রার চাইতে অতিরিক্ত খাবার খেলে পেলভিস পিঠের ওপর চাপ প্রয়োগ করে। এই চাপ ধীরে ধীরে ব্যাক পেইনের প্রাদুর্ভাব ঘটায়। গবেষণায় দেখা গেছে, অতিরিক্ত ও উচ্চ ক্যালরিযুক্ত খাবার হাড়ক্ষয়ে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৫ থেকে ১০ গুণ বেড়ে যায়। এই হাড় ক্ষয় বিভিন্ন ধরনের ব্যথার অন্যতম কারণ।

সাধ্যের চাইতে বেশি বোঝা বহন
মানুষের শরীরের একটি স্বাভাবিক ভারবহন ক্ষমতা আছে। এই ক্ষমতার অতিরিক্ত ভার বহন করলে শরীরের কারিগরী ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটে। নিয়মিত এই অতিরিক্ত ভারবহন অব্যাহত থাকলে শারীরিক ব্যবস্থার ত্রুটি স্বরূপ দেখা দেয় ব্যাক পেইন।

নিষ্ক্রিয়তা ও শরীর চর্চার অভাব
দৈনন্দিন একটি নির্দিষ্ট মাত্রার শরীর চর্চা সবার জন্য বাধ্যতামূলক। অনেকেই অলসতার কারণে এই ব্যায়ামের সাথে সাথে সাধারণ কাজকর্মও এড়িয়ে চলেন। এর ফলে শরীরে পেশীগুলো অভ্যাসের নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে। এমনকি এক সময় ধসে পড়ার পূর্ব লক্ষ্মণ হিসেবে দেখা দেয় ব্যাক পেইন।

হিল কিংবা ফ্লাট জুতা
স্বাভাবিকের চেয়ে হাই কিংবা লো হিলের জুতা পড়লে শরীরের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। আর ভারবহনে ব্যাঘাত ঘটার কারণে শরীরের ভারকেন্দ্র দেখা যায় অসংগতি। এরই ফলশ্রুতিতে ব্যাক পেইনের মতো উৎপীড়নের আগমন ঘটে।

পুরোনো তোষকে ঘুমানো
দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের ফলে তোষক স্থানে স্থানে উচু-নিচু হয়ে পড়ে। এই অবস্থায় তোষকে ওপর ঘুমালে শরীরে ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। অভ্যাসের কারণে হয়তো অস্বস্তি লাগে না, কিন্তু ব্যাক পেইনের আক্রমণে ঠিকই এই অসংগতি ধরা পড়ে।

রাগ জমিয়ে রাখা
রাগের সময় মানুষের শরীরে অতিরিক্ত চাপের সৃষ্টি হয়। এই চাপ রক্ত প্রবাহসহ শরীরের সামগ্রিক ব্যবস্থার ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা বেশি রাগেন কিংবা যাদের রাগ ধরে রাখার অভ্যাস আছে তাদের ব্যাক পেইনে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি।

অতিরিক্ত মানসিক চাপ
কথায় আছে, সুস্থ দেহে সুস্থ মন। তাই মনের অসুস্থতায় শরীরেও নানা বিপত্তি দেখা যায়। এই যেমন, অতিরিক্ত মানসিক চাপ ডেকে আনতে পারে ব্যাক পেইন। স্বাস্থ্যবিদরা জানিয়েছেন, মানসিক চাপ ঘাড় ও পিঠের স্নায়ুর ওপর মারাত্মকভাবে প্রভাব বিস্তার করে। এই চাপের ফলেই দেখা দেয় ব্যাক পেইন।

ব্যাক পেইনের মতো বিড়ম্বনা থেকে রেহাই পেতে উপরে উল্লেখিত বদভ্যাসগুলো এখনই পরিত্যাগ করুন।

Related posts