February 16, 2019

বেশি মেকআপ যখন অপরাধ!

সম্প্রতি এক ঘটনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে ব্রিটেনে। না, কোনো সন্ত্রাসী হামলার হুমকি টুমকি নয়। ১৫ বছরের এক কিশোরীকে রাস্তার মাঝখানে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দিয়েছিলেন টিকেটচেকার। মেয়েটির অপরাধ বলতে তেমন কিছুই ছিল না, কেবল মুখে একটু বেশি রংচং মেখে ফেলেছিল। বলছেন কি, কথা শুনে হাসি পাচ্ছে আপনাদের! তাহলে পুরো ঘটনাটি খুলেই বলি।

এশিয় বংশোদ্ভূত ওই ব্রিটিশ কিশোরীর নাম জাহরা সাদিক। থাকে ইংল্যান্ডের বার্মিংহাম শহরে। গত ২২ ডিসেম্বর বন্ধুদের সঙ্গে সিনেমা দেখতে বেরিয়েছিল সে। ফেরার পথেই সে ওঠেছিল ন্যাশনাল এক্সপ্রেসের কোম্পানির কোচে। বিরাবরের মত সেদিনও সে শিশুটিকেট নিয়েই বাসে ওঠেছিল। কিন্তু বেশি মেকআপ করায় তাকে বেশ বড় দেখাচ্ছিল। এতেই ঘটে বিপত্তি।

বাসের টিকেটচেকার মেয়েটির হাতে শিশু টিকেট দেখে ক্ষেপে যান। জাহরা তাকে যতই বলে তার বয়স মাত্র ১৫, ততই রেগে যান ওই নারী। তার কিছুতেই বিশ্বাস হয় না এ মেয়ে এখনো কিশোরী এবং শিশু টিকেটে বাসে চড়ার অধিকার রাখে সে। তিনি বলেন,‘ও,পয়সা বাঁচাতে কম দামে বাচ্চাদের টিকেট কেটেছ। এখন আবার বয়স কমিয়ে বলছ।’

জাহরা বলে,‘বিশ্বাস করুন, আমার বয়স ১৫। আমি একটুও বয়স কমাচ্ছি না’। তখন দাঁত খিচিয়ে টিকেটচেকার বলেন,‘এ্যাই মেয়ে, আমাকে বোকা পেয়েছ! নিজের চেহারার দিকে তাকাও। এত মেকআপ দিয়েছ যে তোমাকে ১৫ বলে কেউ বিশ্বাস করবে না।’

অপমানের এখানেই শেষ নয়। ওই জাদরেল নারী এরপর জাহরাকে বলেন, ‘তোমার বয়স যে ১৫ তার প্রমাণ কি? তোমার কাছে কি সার্টিফিকেট বা পাসপোর্ট আছে?’

স্বাভাবিকভাবেই মেয়েটির কাছে তা ছিল না। তখন ওই নিষ্ঠুর চেকার জাহরাকে বলেন,‘শোন মেয়ে, আজই বাসায় গিয়ে পাসপোর্টের ছবি তুলে মোবাইলে সেভ করে রাখবে। ভবিষ্যতে কাজে দেবে। এখন লাথি মেরে বাস থেকে ফেলে দেয়ার আগেই নেমে পড়। নইলে তোমার কপালে আরো খারাপি আছে।’

এই বলেই তিনি বাস থামিয়ে মেয়েটিকে এক প্রকার গলা ধাক্কা দিয়েই নামিয়ে দেন। সেই রাতে জাহরাকে বাকি পথ পায়ে হেঁটে একা একা বাড়ি ফিরতে হয়েছে। শুধু কি তাই। বয়স লুকিয়ে শিশুদের টিকেটে বাসে চড়ার জরিমানা হিসেবে তাকে ৩৫ পাউন্ড গচ্ছাও দিতে হয়েছে।

সেদিনের ঘটনা নিয়ে আক্ষেপ করে ব্রিটিশ ট্যালবয়েট ডেইলি মিররকে জাহরা জানায়,‘ আমি মাঝে মাঝে একটু বেশি মেকআপ করে ফেলি। এতে আমাকে খানিকটা বড় দেখায়। কিন্তু আমি তো বয়সের কথা মাথায় রেখেই মেকআপ করি। একটু গাঢ় লিপস্টিক, কাজল, আইলাইনার, আইশ্যাডো আর গালে খানিকটা ফেসপাউডার-ব্লাসঅন এইতো। তাতেই এত কাহিনী।

এ ঘটনায় ক্ষেপেছে জাহরার পরিবার। ইতিমধ্যে তার চাচা নাভিদ সাদিক ন্যাশনাল এক্সপ্রেস কোম্পানির কাছে অভিযোগ করেছেন। ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে ওই বাস কোম্পানি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts