September 20, 2018

‘বেটি বাচাও’-এর সাফল্য, ২০ বছরে এই প্রথম ৯০০ ছুঁল হরিয়ানায় জন্মের ভিত্তিতে লিঙ্গ অনুপাত

(ঝরনা ভূইয়া) চণ্ডীগড়: দু’বছর আগে এই জানুয়ারিতেই হরিয়ানার পানিপথ থেকে ‘বেটি বাচাও, বেটি পঢ়াও’ অভিযান শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ঠিক দু’বছর পরের পরিসংখ্যান বলছে, পাখির চোখ ঠিকই দেখেছিলেন তিনি। কন্যাভ্রূণ হত্যায় দেশের মধ্যে এক নম্বরে থাকা হরিয়ানা চোখে পড়ার মত বদলে গিয়েছে। জন্মের ভিত্তিতে লিঙ্গ অনুপাতে দেখা যাচ্ছে, গত ২০ বছরে এই প্রথম ৯০০ ছুঁয়েছে এ রাজ্য।।

মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খাট্টার জানিয়েছেন, লিঙ্গানুপাতে ছেলেমেয়েদের সংখ্যার যে বিশাল ফারাক ছিল, তা কমিয়ে আনা এভারেস্টে চড়ার থেকে কম পরিশ্রমসাধ্য ছিল না। ২০১৬-র ডিসেম্বরে এই অনুপাত ৯১৪ ছুঁয়েছে। এখন তাঁদের চেষ্টা, ছুঁয়ে ফেলা ৯৫০-র লক্ষ্যমাত্রা। এ জন্য পাশের রাজ্যগুলির সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

সমাজতাত্ত্বিকরা মনে করছেন, বেআইনিভাবে ভ্রূণের লিঙ্গ নির্ধারণ ও কন্যাভ্রূণ হত্যার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার ফলেই হরিয়ানায় লিঙ্গানুপাত কমেছে।

সরকারি আধিকারিকরা জানিয়েছেন, সরকারি সব বিভাগকে কাজে লাগিয়ে জেলাস্তরে চলেছে কাজ। সঙ্গে হাত মিলিয়েছে প্রবল রাজনৈতিক প্রচেষ্টা। খোদ মুখ্যমন্ত্রীর অফিস থেকে এ ব্যাপারে তৈরি হয় বিশেষ সেল। মুখ্যমন্ত্রী খাট্টার নিজে প্রতি মাসে ডেপুটি কমিশনারদের সঙ্গে এ নিয়ে ভিডিও কনফারেন্স করেছেন। মুখ্যমন্ত্রীর অতিরিক্ত প্রধান সচিবের নজরদারিতে শুধু এ জন্যই তৈরি হয় একটি সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপ, যাদের কাজ ছিল কন্যাভ্রূণহত্যা বন্ধের ব্যাপারে তথ্য শেয়ার করা। এর ফলে বিভিন্ন জেলার মধ্যে একে অপরকে টপকে যাওয়ার সুস্থ প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

এছাড়া ভ্রূণের লিঙ্গ নির্ধারণের বিরুদ্ধেও চলে জোরদার প্রচার। এ ব্যাপারে আইন আরও কড়া হয়, প্রচার চলে, অকারণে জোর করে গর্ভ নষ্ট করলে কঠোর সাজা হবে।

নিয়মিত বৈঠক, পথনাটিকা ও শহর-গ্রামে মিছিল করে সচেতনতা বাড়ানো হয়। এতে যোগ দেন সাক্ষী মালিক, গীতা ফোগত, ববিতা ফোগত ও দীপা মালিকের মত হরিয়ানার সফল ক্রীড়াবিদরা। আন্তর্জাতিক ময়দানে হরিয়ানার মেয়ে খেলোয়াড়দের জয়লাভও এই প্রকল্পের কাজ বিরাটভাবে এগিয়ে দিয়েছে।

তবে এই প্রকল্পের সামনে চ্যালেঞ্জ রয়েছে এখনও। হরিয়ানার কাছে দিল্লি, রাজস্থান, পঞ্জাব ও উত্তরপ্রদেশে গজিয়ে উঠেছে একের পর এক বেআইনি আলট্রাসাউন্ড সেন্টার। এগুলির বিরুদ্ধে এখন অভিযান শুরু করেছে রাজ্য সরকার।

 গ্লোবেল নিউজ ব্যুরো প্রতিনিধি/১৭

child-2-compressed-580x385

 

Related posts