November 14, 2018

বৃটেনে অনুমতি পেল পতিতাপল্লী!

943

বৃটেনে প্রথমবারের মতো অনুমতি দেয়া হয়েছে পতিতাপল্লীর। এর ফলে কোনো গ্রেপ্তারের ভয়, আতঙ্ক ছাড়াই দেহ ব্যবসায়ী নারীরা তাদের কর্মকাণ্ড চালাতে পারবেন। সেখানে যাওয়া খদ্দেরদেরও পুলিশি হয়রানির মুখে পড়তে হবে না। শুধু তা-ই নয়, দেহ ব্যবসায়ী নারীরা তাদের গণ্ডির মধ্যে থাকায় তারা হবেন নিরাপদ। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মিরর। এতে বলা হয়েছে, দেহব্যবসা বৃটেনে অনেকটা ঝুঁকির। বিশেষ করে নারীদের। তাদেরকে কোনো খদ্দের সঙ্গে নিয়ে তার প্রাণহানি করার মতো ঝুঁকি আছে। এখন তারা একটি নির্দিষ্ট গণ্ডিতে থাকার কারণে তেমনটা হওয়ার আশঙ্কা কম। ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারে লিডস এলাকায় তাই বৃটেন আনুষ্ঠানিকভাবে রেড লাইট ডিস্ট্রিক্ট বা পতিতালয় চালু করেছে। তবে সেখানে যৌনকর্মীরা রাত ৭টা থেকে সকাল ৭টার মধ্যে নির্দিষ্ট কিছু নিয়মের অধীনে তাদের কর্মকাণ্ড চালাতে পারবেন।

তবে কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে স্থানীয় লোকজনের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। তারা বলছেন, এতে স্থানীয় বাসিন্দাদের নানা ঝক্কিতে পড়তে হবে। আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে। ওই এলাকায় এবি ফোর নামে একটি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গ্রেগ এডামস নতুন অফিস নিয়েছেন সেপ্টেম্বরে। তিনি বলেন, কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে আমরা ভীতসন্ত্রস্ত। এক্ষেত্রে স্থানীয় কাউন্সিল ও পুলিশ চোখ বন্ধ করে রেখেছে। এখানে অনেক ঘটনা ঘটছে। লোকজন গাড়ির ভিতর, কোনো ভবনের আড়ালে শারীরিক সম্পর্কে মিলিত হচ্ছে। অনেকে মাদক সেবন করছে। তিন সপ্তাহ আগে ২১ বছর বয়সী এক যৌনকর্মী নিহত হন। তা সত্ত্বেও এরপর থেকে এই এলাকাকে পুলিশ ও স্থানীয় সিটি কাউন্সিল সবুজ সংকেত দিয়ে দিয়েছে। ওই যৌনকর্মীর নাম দারিয়া পিওঙ্কো। তাকে যখন উদ্ধার করা হয় তখন তিনি ছিলেন মারাত্মক আহত। পরে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় ২৪ বছর বয়সী এক যুবককে বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। লিডস সিটি কাউন্সিলের কাউন্সিলর মার্ক ডবসন পতিতালয় প্রতিষ্ঠার পক্ষে। তিনি বলেন, যৌনকর্মীরা যাতে নিরাপদে তাদের কার্যক্রম চালাতে পারেন সে জন্য তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে এই পতিতালয় স্থাপন করা হয়েছে। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ সব সময়ই পতিতালয় বা পতিতাবৃত্তির বিরোধিতা করেন। কিন্তু আমি বলি, এটা এমন এক পেশা যা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে চলমান। একে কেউ থামিয়ে রাখতে পারবে না। তাই এ খাতে যেসব নারী রয়েছেন তাদের নিরাপত্তা দেয়া দরকার। পুলিশও বলেছে, যৌনকর্মীরা যেসব সমস্যার মুখোমুখি হন তাদেরকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য এ প্রকল্পের প্রয়োজন ছিল।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts