September 22, 2018

বুরকিনা ফাসো হামলাঃ নিহত ১৭ বিদেশি

103

বুরকিনা ফাসোর হোটেল হামলায় যে ২৯ জন নিহত হয়েছেন তাদের মধ্যে বেশিরভাগই বিদেশি। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৫৬ জন। এদিকে এ ঘটনায় দেশটিতে ৭২ ঘণ্টার জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে।

জঙ্গি গোষ্ঠী আল কায়দা ইন দ্য ইসলামিক মাগরেব (একিউআইএম) এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। ফ্রান্স এবং পশ্চিমের প্রতি প্রতিশোধ নিতেই তারা এ হামলা চালিয়েছিল বলে দাবি করেছে।

বুরকিনা ফাসোর প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডেউ বলেছেন, ইসলামি জঙ্গিদের ওই হামলায় চার হামলাকারীসহ ২৯ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ছয়জন কানাডার নাগরিক রয়েছেন। নিহতদের স্মরণে শনিবার তিন দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার।

ওই হামলায় সবমিলিয়ে ১৭ বিদেশি বিদেশি নিহত হয়েছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে। কানাডার ছয়জন ছাড়াও নিহতদের মধ্যে বুরকিনাবের পাঁচ, ফ্রান্সের তিন, সুইজারল্যান্ডের দুই এবং নেদারল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের একজন করে নাগরিক রয়েছেন। দেশটির সরকার আরো জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে মালির সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে এক বিদেশি চিকিৎসক ও তার স্ত্রীকে অপহরণ করা হয়েছে। অপহৃত দুজন অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক বলে জানা গেছে।

শুক্রবার রাতে বার্কিনা ফাসোর রাজধানী উয়াগাদুগুর চারতারা হোটেল স্পেলেনডিডে হামলা চালায় জঙ্গিরা। তারা শতাধিক মানুষকে জিম্মি করে। স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনী ও ফরাসি সেনারা যৌথ অভিযান চালিয়ে শনিবার সকালে হোটেল থেকে ১৭৬ জন পণবন্দিকে উদ্ধার করে।
102
উদ্ধারকৃতদের মধ্যে দু’জন ভারতীয়ও রয়েছেন। পুলিশ-জঙ্গি বন্দুযুদ্ধে নিহত হয়েছে অন্তত পাঁচ জঙ্গি। এদের তিনজনকে সনাক্ত করা হয়েছে । পুলিশ বলছে, জঙ্গিদের মধ্যে দুই নারীও ছিল।

উয়াগাদুগুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে অবস্থিত এই চার তারা হোটেলটি জাতিসংঘ কর্মকর্তাসহ বিদেশিদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। যদিও এ হোটেলটিতে এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলার এটিই প্রথম ঘটনা।

তবে আফ্রিকায় এ ধরনের হামলা কোনো নতুন ঘটনা নয়। গত নভেম্বরে মালির রাজধানী বামাকোর এক হোটেলে হামলা চালিয়ে ১৭০ জনকে জিম্মি করেছিল বন্দুকধারীরা। হামলাকারীদের সঙ্গে দীর্ঘ নয় ঘণ্টা বন্দুকযুদ্ধের পর অধিকাংশ জিম্মিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছিল। তবে এ ঘটনায় হামলাকারীসহ প্রাণ হারিয়েছিল ১৯ জন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts