November 17, 2018

বিয়ের নামে এ কেমন প্রতারণা !

 বিয়ে নিয়ে অন্য এক প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে ভিয়েতনামের একটি চক্র। তারা স্থানীয় যুবতীদের অর্থের বিনিময়ে বিয়ে দিচ্ছে চীনা পুরুষদের সঙ্গে। একবার এসব যুবতী স্বামীর সঙ্গে চীনে যাওয়ার পর আবার পালিয়ে ফিরছে নিজ দেশে। ফের বিয়ের ফাঁদ পাতছে। আবার কোনো চীনা পুরুষকে বিয়ে করছে। এভাবে হাতিয়ে নিচ্ছে বড় অঙ্কের অর্থ। এজন্য গড়ে উঠেছে একটি চক্র। এমনই এক ঘটনা ঘটে চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের নানাং গ্রামে। সেখান থেকে একই রাতে নিখোঁজ হয়েছেন ১৭ গৃহবধূ। তারা সবাই ভিয়েতনামি। ফুজিয়ান রাজ্যের একটি গ্রাম নানাং থেকে, একই দিনে ১০ জনেরও বেশি নববধূ নিখোঁজ হয়েছে। এতে ধারণাটি এখন মোটামুটি পরিষ্কার যে এটি একটি সংঘবদ্ধ চক্রের কাজ। চীনে পুরুষের তুলনায় নারীর সংখ্যা অনেক কম। এজন্য চীনা পুরুষরা পাত্রী খুঁজতে ছুটছে ভিয়েতনামে।
দেখা যাচ্ছে, চীনা পুরুষরা ভিয়েতনামি যুবতীদের বিয়ে করতে ৬০ হাজার ইউয়েন পর্যন্ত দিয়ে থাকে ম্যারিজ মিডিয়া বা মধ্যস্থতাকারীকে। বিয়ের পর কোনো ধরনের আভাস না দিয়েই এসব যুবতী একপর্যায়ে উধাও হয়ে যায়। চীনের মিডিয়ার তথ্য মতে, নানাং গ্রাম থেকে গত ১৬ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রায় ১৭ জন বধূ নিখোঁজ হয়েছে। এসব যুবতীর মধ্যে কেউ কেউ আবার সন্তানসম্ভবা। এদের কারোরই বিয়ের কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। তাদের বিয়ে দেয়ার জন্য গড়ে উঠেছে একটি অসাধু চক্র। তারাই বিয়েতে মধ্যস্থতা করে। পাত্র ধরে দেয়। পণের অর্থ নির্ধারণ করে দেয়। এর পরিমাণ ৬০ হাজার ইউয়েন পর্যন্ত ওঠে। চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের আরন নামে এক পুরুষ এ পদ্ধতিতে বিয়ে করেছিলেন ভিয়েতনামের এক যুবতীকে। তারপর প্রথম ৬ মাস তাদের দাম্পত্য জীবন ছিল স্বাচ্ছন্দ্যে ভরপুর। কিন্তু আরনের দুর্ভাগ্য।
একদিন পানি কেনার কথা বলে বাসা থেকে বেরিয়ে যায় তার স্ত্রী। সেই যে গেল আর কোনোদিন ফিরে আসেনি। আরন বলেন, তাদের এলাকায় অনেক আগে থেকেই নারীর তুলনায় পুরুষের সংখ্যা বেশি। তার দাদির আমল থেকেই এমন ধারা বিদ্যমান। বর্তমানে সেখানে পুরুষ ও নারীর আনুপাতিক হার হচ্ছে ১২ : ২। অর্থাৎ প্রতি ১২ জন পুরুষের বিপরীতে নারী আছে দুজন। এজন্য চীনা পুরুষরা তাদের জীবনসঙ্গী বাছাই করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। গ্রামে এই অবস্থা আরও নাজুক। তাই চীনা পুরুষরা তার নারী সঙ্গী খুঁজে নিতে পাড়ি জমান ভিয়েতনাম বা লাওসে। সেখানে গিয়ে তারা পাত্রী পছন্দ করে বিয়ে করছেন। উদ্দেশ্য, সুখে ঘর সংসার করা। কিন্তু তাদের এ স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিণত হচ্ছে। তারা শিকার হচ্ছেন প্রতারণার।

Related posts