November 20, 2018

বিশ্বনাথে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ফের বাল্যবিয়ে ভঙ্গ

photoমো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: বিশ্বনাথে উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ভঙ্গ হলো একটি বাল্যবিয়ে। ছেলে-মেয়েকে বাল্য বিয়ে দিবেন না বলে উপজেলা প্রশাসনে লিখিত অঙ্গিকারনামা দিয়েছেন বর-কনের পিতা। আজ শুক্রবার বিকেলে এ অঙ্গিকারনামায় স্বাক্ষর করেন বর-কনের পরিবার। শুক্রবার বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের নকিখালিস্থ শাহ উসমান কমিউনিটি সেন্টারে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নতুন পারকুল গ্রামের ছমরু মিয়ার ছেলে কাউছার আহমদ (১৯) এর সঙ্গে বিশ্বনাথ উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের উজাজুরী গ্রামের মৃত আবদুল মুতলিবের মেয়ে (১৯) বিয়ের অনুষ্টানের আয়োজন ছিল। বর পক্ষের লোকজনও সেন্টারে বিয়ের গাড়ির বহর নিয়ে হাজির হন।

কনের পক্ষের লোকজন তাদের সেন্টারে আমন্ত্রন জানান। তবে বরের বয়স কম তাই এটি বাল্যবিয়ের আওতায় পড়ে। এমন খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন হাজির হয় ওই বিয়ের সেন্টারে। সেখানে গিয়ে প্রশাসন বর-কনের জন্মনিবন্ধন দেখে বরের বয়স দুই বছর কম হওয়ায় এই বাল্যবিয়ে ভঙ্গ করে দেয়। এসময় রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, থানার এসআই স্বাধীন তালুকদার, এএসআই জামাল উদ্দিন বরের পিতা ছমরু মিয়া, কনের মা, স্থানীয় ইউপি সদস্য ইছাক আলী, মিনা বেগম, সাংবাদিকসহ এলাকার ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা তুজ জোহরা বলেন, বাল্যবিয়ে ভেঙে দেয়া হয়েছে। বর-কনের পক্ষের লোকজন বাল্যবিবাহ না দেয়ার জন্য অঙ্গিকারনামা করেছেন। বর-কনের জন্মনিন্ধন কার্ড অনুযায়ী বরের বয়স কম হওয়ায় এটি বাল্যবিয়ে আওতায় পড়ে তাই বিয়ে ভঙ্গ করা হয়। উপজেলায় কোনো অবস্থাতে বাল্য বিবাহ হতে দেয়া হবেনা বলে তিনি জানান।

Related posts