April 25, 2019

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় অন্ত:সত্ত্বা মহিলা’সহ আহত ২ : আদালতে মামলা

3000793বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: সিলেটের বিশ্বনাথে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় অন্ত:সত্ত্বা মহিলা’সহ দুই জন আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের তালিবপুর গ্রামে এঘটনাটি ঘটে। আহতরা হলেন- তালিবপুর গ্রামের মৃত সাজিদুর রহমানের পুত্র রইস মিয়া ও একই গ্রামের আব্দুস সামাদের অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রী লাকী বেগম। এঘটনায় তালিবপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের পুত্র লায়েক আহমদ বাদি হয়ে গত সোমবার প্রতিপক্ষের ৩জনকে আসামী করে সিলেট জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৩য় ও আমল গ্রহনকারী আদালতে একটি সিআর মামলা দায়ের করেছেন (১১০/১৮ইং)। মামলার অভিযুক্তরা হলেন তালিবপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রব’র পুত্র আবু সাঈদ (৫০), ওয়াইছ মিয়া (৪৫) ও অপু মিয়া (৫৫)।

আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগে দাবি উল্লেখ করেন, বিবাদীদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এবিষয়ে বাদির পিতা আদালতে একটি বাটোয়ারা মামলা (৫৯/২০১৫ইং) দায়ের করেন। সম্প্রতি বিবাদীগণ বিরোধপূর্ণ জায়গায় দেয়াল নির্মাণ করে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার পায়তা ও বাদিপক্ষকে হুমকি দিলে গত ৮ মার্চ লায়েক আহমদ বিশ্বনাথ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি নং- ৩৮৩৭) করেন। বাদিপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিরোধপূর্ণ জায়গায় কোনরূপ স্থাপনা নির্মাণ না করতে গত ২৫মার্চ নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেন আদালত। কিন্ত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেন বিবাদীরা গত ৩১মার্চ ভোর সাড়ে ৬টায় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ৬০/৭০ জন ভাড়াটিয়া লোক সহ বাদির বাড়িতে প্রবেশ করে বিরোধপূর্ণ জায়গায় জোরপূর্বকভাবে দেয়াল নির্মাণের প্রস্তুতি নেন। এসময় বাদি পক্ষের লোকজন আপত্তি করলে অভিযুক্তদের হামলায় আহত হন বাদির চাচাতো ভাই রইস মিয়া ও চাচাতো ভাইয়ের অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রী লাকী বেগম। তাৎক্ষণিক তাদেরকে গুরুত্বও আহত অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত লাকী বেগমের অবস্থা আশংকাজনক বলে মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

বাদি পক্ষের আইনজীবী এ কে এম সামিউল আলম জানান, আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগটি ৪৪৭, ৩২৩, ৩২৪, ৩২৫, ৩২৬, ৩০৭, ১১৪ ও ৩৪ ধারায় এজাহার হিসেবে গন্য (এফআইএর) করে আদালতকে অবহিত করতে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) কে নির্দেশ প্রদান করেছেন সিলেট সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কাঁকন দে।

এব্যাপারে অভিযুক্ত ওয়াইছ মিয়া বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক নয়। আমারা বাড়িতে ফিতা দিয়ে জায়গায় মাপ দিতে চাইলে লায়েক আহমদ গংরা আমাদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা করেন। এতে আমাদের পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন।

Related posts