November 17, 2018

বিশ্বনাথে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা দায়ের : গ্রেফতার ১

biswanathবিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি  :: সিলেটের বিশ্বনাথে রাস্তায় গাড়ি নিয়ে চলাচলকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিপক্ষের ১৪জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের চক রামপ্রসাদ গ্রামের মৃত ইছহাক আলীর পুত্র ইন্তাজ আলী বাদি হয়ে গত ২৫ মে বিশ্বনাথ থানায় এই মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৩। মামলা দায়েরের পর গত শুক্রবার দিবাগত রাতে মামলার এজাহার নামীয় আসামী হাছন আলী (৩৮) কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। তিনি চক রামপ্রসাদ (লামারচক) গ্রামের মৃত ইয়াজ উল্লাহর পুত্র।

মামলার অন্যান্য অভিযুক্তরা হলেন- চক রামপ্রসাদ গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিমের পুত্র আফরোজ আলী (৪০), একই গ্রামের মৃত চান্দ আলীর পুত্র জামাল উদ্দিন (৩৫), মৃত আছদ্দর আলীর পুত্র হুশিয়ার আলী (৩৮), মৃত আব্দুল কাদিরের পুত্র মস্তাব আলী (৩৫), পরতাব আলী (৪০), মক্তার আলী (৫০), আমির আলী (৩০), মৃত আব্দুল হাসিমের পুত্র ইউনুছ আলী (৪৫), মৃত চান্দ আলীর পুত্র দিলওয়ার (২৫), মৃত খোয়াজ আলীর পুত্র ফয়েক (২৫), ইশান আলী (৩৫), মৃত হারিছ আলীর পুত্র ফখরুল (২২) ও চেরাগ আলীর পুত্র জায়েদ (২১)।

মামলার এজাহারে বাদি ইন্তাজ আলী উল্লেখ করেন, বিবাদীদের সঙ্গে তার লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়াদি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত ১৮মে বিকেলে বাদির শালা কাদিপুর গ্রামের মকবুল আলীর বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে অতিথিরা আসেন এবং আলাপ-আলোচনা শেষে তারা যাওয়ার পথে বিবাদী আফরোজ আলীর সবত ঘরের সমানে পৌছামাত্র মেহমানদের সিএনজি অটোরিক্সার পথরোধ করে তাদের সাথে ঝগড়ায় শুরু করেন বিবাদীরা। তাক্ষণিকভাবে বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে বাদি ইন্তাজ আলী পৌছে এহেন কর্মকান্ডের কারণ জিজ্ঞেস করলে বিবাদীরা সংঘবদ্ধ হয়ে ইন্তাজ আলী গংদের উপর হামলা করেন। এতে ইন্তাজ আলী, তার স্ত্রী, ৩পুত্র ও একটি শিশু সহ ৭জন লোক আহত হয়েছেন বলেন এজাহারে উল্লেখ করেন।

উল্লেখ, গত ১৮ মে বিকেলে মকবুল আলীর বাড়িতে অতিথিরা গ্রামের রাস্তা দিয়ে সিএনজি অটোরিক্সা নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে ইন্তাজ আলী ও মস্তাব আলী পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে মহিলা ও শিশু’সহ উভয় পক্ষের ১০জন আহত হন।

Related posts