September 23, 2018

বিশ্বনাথে তজম্মুল আলী স্মরণে নাগরিক স্মরণ সভা কর্মগুণে বেঁচে থাকবেন চিরকাল …ডাঃ আবদুল মালিক



19.08.17মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: বাংলাদেশ সরকারের প্রাক্তন উপদেষ্ঠা, ঢাকা ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) ডাঃ আবদুল মালিক বলেছেন, সর্বজন শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ ছিলেন শিক্ষক তজম্মুল আলী। নিজ কর্মগুণে তিনি আজীবন মানুষের অন্তরে বেঁচে থাকবেন। তাঁর জীবন থেকে শিক্ষার্জন করে আজকের শিক্ষার্থীদেরকে নিজেদের কাজ নিজেরাই করতে হবে। কারণ নিজের বিবেকের দায় থেকে ভালো কাজ করলে মানুষের মাঝে বেশি দিন বেঁচে থাকা যায়। নিয়মের ব্যতিক্রম নেই, তাই আমাদের সবাইকে নিজেদের স্বার্থের উবের্ধ উঠে সকল কাজ করতে হবে। তিনি আরোও বলেন, শিক্ষার্থীরা যাতে সৃজনশীল শিক্ষার্জন করতে পারে সেজন্য শিক্ষকদেরকে গূরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। যার যার ধর্মের উপর বিশ্বাস ও নৈতিকতা বজায় রেখে নিজের উপর অর্পিত দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করতে হবে শিক্ষার্থীদেরকে। কোন অবস্থায় জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত হওয়া যাবে না। তিনি ১৯ আগষ্ট শনিবার সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা সদরস্থ শত বছরের প্রাচীন বিদ্যাপীঠ রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মরহুম তজম্মুল আলী স্মরণে নাগরিক স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথাগুলো বলেন। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা মো. মহসিন ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল আজিজ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট ২ আসনের সংসদ সদস্য ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী, মরহুম তজম্মুল আলীর পুত্র মিজানুর রহমান, রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পংকি খানের সভাপতিত্বে এবং বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আবুল কালাম কছির, সাহাবউদ্দিন ও সহকারী প্রধান শিক্ষক আবদুল বারীর যৌথ পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য আ.ন.ম শফিকুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ ফরিদ আহমদ, বিশ্বনাথ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সিরাজুল হক, উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নেছার আহমদ, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের আজীবন সদস্য আবু তালেব মুরাদ, দেওকলস দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল মুকিদ, কেন্দ্রীয় খেলাফত মজলিসের সাংগঠনিক সম্পাদক মুনতাসির আলী, জালালাবাদ টিটি কলেজের অধ্যক্ষ হাসমত উল্লাহ, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমির আলী, অলংকারী ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম রুহেল, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সমীর কান্তি দেব, প্রাক্তন মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সোলায়েমান হোসাইন, রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উচ্চ বিদ্যায়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক নবেন্দু জ্যোতি দে, শিক্ষক আবদুল ওয়াদুদ বিএসসি, সুনামগঞ্জ জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শুকুর আলী, প্রাইম ব্যাংকের ম্যানেজার তাজউদ্দিন, চিকিৎসক শাহনুর আলী মামুন, এম.এ.এম.খান, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক আবদুল হাই, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক জয়নাল আবেদীন, জেলা যুবলীগ নেতা শেখ মো. আজাদ, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মকদ্দছ আলী, যুগ্ম-আহবায়ক আলতাব হোসেন, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোসাদ্দিক হোসেন সাজুল, বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী শিপন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হুমায়ুন কবির, শিক্ষার্থী তাহমিনা চৌধুরী তমা, ইফতেখার আহমদ, প্রথমা ভৌমিক অথৈ।

উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার তৈয়ব আলী, বৃক্ষ প্রেমিক আব্দুল গফ্ফার উমরা মিয়া, শিক্ষক ফখরউদ্দিন, ফারুক আহমদ, নিশি কান্ত পাল, কবির আহমদ, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক মহিউদ্দিন, অমৃত লাল দাস, আবদুল বারী, ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সদস্য শেখ মনির মিয়া, মির্জা রু¯ুÍম বেগ, বিশ্বনাথ সদর ইউপির মেম্বার জহুর আলী, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মহব্বত আলী, জেলা বিএনপি নেতা জসিমউদ্দিন জুনেদ, আওয়ামী লীগ নেতা ফজে আহমদ সেবুল, তপন দাশ, বশারত আলী বাছা, শাখাওয়াত হোসেন, আবদুল মতিন, বিএনপি নেতা ফারুক আহমদ, আসাদুজ্জামান নূর আসাদ, জাপা নেতা আরশ আলী বাবলু, সিতাব আলী, আবদুল হান্নান, একেএম দুলাল, সুমন আহমদ সুনন, তাজউদ্দিন বাবুল, জামায়াত নেতা মাস্টার ইমাদউদ্দিন, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য পিনাক চক্রবর্তী, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বৈদ্য, উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি কলমদর আলী, উপজেলা জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর দাশ শংকু, বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক প্রনঞ্জয় বৈদ্য অপু, যুগ্ম-সম্পাদক এমদাদুর রহমান মিলাদ, সদস্য রফিকুল ইসলাম জুবায়ের, অসিত রঞ্জন দেব, নূরউদ্দিন, শিক্ষক সায়েফ আহমদ সায়েক, চিকিৎসক এম এ কদ্দুছ চৌধুরী,ব্যবসায়ী নূরুল ওয়াছে আলতাফী, ব্যাংকার মতিউর রহমান রাসেল, সংগঠক মৌলানা লুৎফুর রহমান, মৌলানা আকমল হোসেন, হাবিবুর রহমান নুনু, আবদুল জলিল, ইমাদউদ্দিন দয়াল, সাইদুল ইসলাম, ইকবাল হোসেন, আবদুল তাহিদ, সাংবাদিক নাজমুল ইসলাম মকবুল, আবদুস ছালাম, যুবলীগ নেতা নিজামউদ্দিন, গিয়াসউদ্দিন, মনোহর হোসেন মুন্না, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম, ছাত্রদল নেতা তারেক আহমদ খজির, ইমরান আহমদ সুমন, আবদুর রহিম, বিশ্বনাথ ডেফোডিল এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি তন্ময় দেব রায়, বিশ্বনাথ নতুন বাজার বণিক সমিতির কমিশনার এমদাদ হোসেন নাইম প্রমুখ।

সভাশেষে মিলাদ পরিচালনা করেন বিশ্বনাথ বায়তুল নাজাত জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আশফাকউদ্দিন।সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের উদ্যোগে তজম্মুল আলীর আত্তার শান্তি কামনায় প্রার্থনা করা হয়।

Related posts