April 21, 2019

বিশ্বনাথে কাপ-পিরিছের সমর্থকদের হামলায় যুবলীগ নেতা আহত

IMG_20190318_003408বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলার আশুগঞ্জ বাজারে ‘নৌকা ও কাপ-পিরিছ’র সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। রোববার রাত ৯টার দিকে সংঘঠিত হাতাহাতির ঘটনায় নৌকার কর্মী আনোয়ার হোসেন শওকত (৪৮) আহত হয়েছেন। শওকত যুবলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। আহত যুবলীগ নেতা শওকত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা গ্রহন করেছেন। এঘটনায় বিশ্বনাথ থানায় আনোয়ার হোসেন শওকত বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাতে এশার নামাজ আদায় করে মসজিদ থেকে ফেরার পথিমধ্যে কাপ-পিরিছের সমর্থক বিএনপি নেতা চুনু মিয়া স্থানীয় ওয়ার্ড (৬নং) আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী ঈর্শ্বাদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক সাঈফ উদ্দিন গেদার পথ রোধ করেন। এসময় চুনু মিয়া তাদেরকে বলেন কাল (সোমবার) নাকি আপনারা সেন্টার ব্লক করে সিল মারবেন, এরকম কিছু হলে রক্তের বন্যা বসবে। বিএনপি নেতা চুনু মিয়ার মুখে এমন কথা শুনে এর তীব্র প্রতিবাদ করেন যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন শওকত। এনিয়ে চুনু-শওকতের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এর এক পর্যায়ে চুনু মিয়ার সাথে থাকা বিএনপির নেতাকর্মীরা যুবলীগ নেতা শওকতের উপর হামলা করে। এতে শওকত গুরুত্বর আহত হন। শওকত আহত হওয়ার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে আওয়ামী লীগ পন্থিরা জড়ো হয়ে তাদেরকে তাড়া করেন। পরে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এব্যাপারে যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন শওকত বলেন, বিএনপি নেতা চুনু মিয়ার নেতৃত্বে একদল ক্যাডার বাহিনী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের সাথে বিয়াদবি করায় আমি এর প্রতিবাদ করি। এতে তারা আমার উপর হামলা করে আমাকে আহত করেছে।

বিষয়টি সম্পূর্ন মিথ্যা-বানোয়াট দাবী করে বিএনপি নেতা চুনু মিয়া বলেন, আমরা তার উপর কোন হামলা করিনি। বরং তারা দীর্ঘদিন ধরে ভোট সেন্টারে না যাওয়ার জন্য আমাদেরকে হুমকি দিয়ে আসছে।

বিশ্বনাথ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ দুলাল আকন্দ বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Related posts