November 20, 2018

বিশ্বনাথে এসএসসিতে বেড়েছে জিপিএ-৫, দাখিলে শূন্য

IMG_20180507_002817_027মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ (সিলেট) থেকে ::২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার ফলাফলে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ‘মোট পাশের হার’ গত বছরের চেয়ে এবার বৃদ্ধি পেয়েছে। পাশাপাশি এসএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাশ প্রতিষ্ঠান ও জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বাড়লেও গত বছরের মতো এবারও দাখিল পরীক্ষায় কোন প্রতিষ্ঠান শতভাগ সাফল্য অর্জন করতে পারেনি এবং কোন শিক্ষার্থীও জিপিএ-৫ পাননি।
এসএসসিতে এবছর উপজেলার মোট পাশের হার ৮৪.১৯%, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৪ জন শিক্ষার্থী, শতভাগ ফলাফল অর্জন করেছে ২টি প্রতিষ্ঠান এবং দাখিলে উপজেলার মোট পাশের হার ৬৮.৮৮%। এসএসসিতে গত বছর উপজেলার মোট পাশের হার ছিল ৭৯.১৪%, জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪৪ জন শিক্ষার্থী, শতভাগ ফলাফল অর্জন করেছিল ১টি প্রতিষ্ঠান এবং দাখিলে উপজেলার মোট পাশের হার ছিল ৬৪%।
৩১টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২ হাজার ৩৯৮ জন শিক্ষার্থী এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে ২ হাজার ১৯ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন গ্রেডে উর্ত্তীন হয়েছেন। উর্ত্তীনকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৫৪ জন এ প্লাস, ৫০৪ জন এ, ৫৮৩ জন এ মাইনাস, ৬২৪ জন বি, ২৫১ জন সি, ৩ জন ডি গ্রেড পেয়েছেন এবং ফেল করেছেন ৩৭৯ জন শিক্ষার্থী। এসএসসিতে উপজেলার সর্বোচ্চ ১৪টি জিপিএ-৫ পেয়েছে একলিমিয়া দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এবং শতভাগ ফলাফল অর্জন করেছে দশঘর এন ইউ উচ্চ বিদ্যালয় ও হযরত ওমর ফারুক (রাঃ) একাডেমী।
১৬টি মাদ্রাসার ৭৬৮ জন শিক্ষার্থী এবারের দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন ৫২৯ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন গ্রেডে উর্ত্তীন হয়েছেন। উর্ত্তীনকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১১৬ জন এ, ২১৯ জন এ মাইনাস, ১৫০ জন বি, ৩৫ জন সি গ্রেড পেয়েছেন এবং ফেল করেছেন ২৩৯ জন শিক্ষার্থী। ৮৭.৫০% পাশের হার হওয়ায় ‘পাশের হারের দিক দিয়ে’ দাখিলে উপজেলার সর্বোচ্চ স্থান দখল করেছে নতুন হাবড়া বাজার দাখিল মাদ্রাসা।
উপজেলা মাধ্যমিক অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এসএসসি পরীক্ষায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শতকরা পাশের হার হচ্ছে- আলহাজ্ব লজ্জাতুন নেছা উ.বি ৯৮.০১%, দেমাসাস উ.বি ৯৭.৬২%, দেওকলস দ্বি-পাক্ষিক উ.বি এন্ড কলেজ ৯৭.৫০%, দক্ষিণ বিশ্বনাথ বালিকা উ.বি এন্ড কলেজ ৯৭.৪৩%, উত্তর বিশ্বনাথ দ্বি-পাক্ষিক উ.বি ৯৬.২৫%, চারিগ্রাম আদর্শ উ.বি ৯৫.৬৫%, সৎপুর উ.বি ৯৫.২৩%, জনকল্যাণ উ.বি ৯২.৭৫%, চান্দভরাং উ.বি এন্ড কলেজ ৯২.১৯%, একলিমিয়া দ্বি-পাক্ষিক উ.বি ৯১.৮০%, দৌলতপুর আদর্শ উ.বি এন্ড কলেজ ৯১%, আলহাজ্ব তাহির আলী উ.বি ৮৯.৯২%, খাজাঞ্চী একাডেমী উ.বি ৮৯.১৮%, হাজী মফিজ আলী বালিকা উ.বি এন্ড কলেজ ৮৯.১৩%, বাউসী-কাশিমপুর উ.বি ৮৭.১৪%, শাহপিন উ.বি ৮৪.৬২%, সিঙ্গেরকাছ পাবলিক বহুমুখী উ.বি এন্ড কলেজ ৮১.০৮%, হাজী ইয়াসিন উল্লাহ উ.বি ৮১.০৫%, শহীদ জিয়াউর রহমান উ.বি ৭৮.৭২%, পিএমসি একাডেমী ৭৮.৬৫%, আশুগঞ্জ আদর্শ উ.বি এন্ড কলেজ ৭৭.২৭%, কোনারাই আনোয়ার হোসেন উ.বি ৭৬.১৯%, রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উ.বি ৭৬.০৩%, জমির আহমদ বহুমুখী উ.বি ৭৫.৫৫%, হযরত শাহজালাল (রঃ) উ.বি ৭৪.৫১%, সফত উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয় ৭৪.৩৬%, জাগরণ উ.বি ৬৫.২৫%, প্রগতি উ.বি ৬৩.৭৭%, আল-আযম উ.বি এন্ড কলেজ ৫৮.২৩%।
উপজেলা মাধ্যমিক অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী দাখিল পরীক্ষায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শতকরা পাশের হার হচ্ছে- সিঙ্গেরকাছ আলীম মাদ্রাসা ৮৬%, হযরত শাহ চান্দ শাহ কালু ইসলামিয়া আলীম মাদ্রাসা ৮৫.২৯%, মিছবাউল উলুম দাখিল মাদ্রাসা ৭৪.০৭%, বিশ্বনাথ দারুল উলুম কামিল মাদ্রাসা ৭৪%, সৎপুর কামিল মাদ্রাসা ৭৩.০৩%, ছহিফাগঞ্জ এসডি মাদ্রাসা ৭৩.০২%, আল-ঈর্শ্বাদ লতিফিয়া দাখিল মাদ্রাসা ৬৯.৬৯%, করিমুন নেছা বালিকা দাখিল মাদ্রাসা ৬৭.৭৪%, দশপাইকা আনোয়ারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা ৬৫%, কামাল বাজার আলীম মাদ্রাসা ৬০.৮৭%, লতিফিয়া ঈর্শ্বাদিয়া দাখিল মাদ্রাসা ৬০.৬৭%, আমতৈল পঞ্চগ্রাম মোহাম্মদিয়া দাখিল মাদ্রাসা ৫৫%, বড়তলা মাজহারিয়া দাখিল মাদ্রাসা ৫৩.৬৬%, এলাহাবাদ আলীম মাদ্রাসা ৪৮.২৭%, ভূরকি হাফিজিয়া দাখিল মাদ্রাসা ২৬.৬৭%।

Related posts