November 17, 2018

বিশ্বনাথে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে স্কুল শিক্ষক বিপাকে

fghfgবিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: সিলেটের বিশ্বনাথে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করায় বিপাকে পড়েছেন আব্দুল্লাহ মাসউদ (২৩) নামের এক নওমুসলিম স্কুল শিক্ষক। ধর্মান্তরিত হওয়ার আগে তার নাম ছিল শ্রী তপু চন্দ। তিনি বিশ্বনাথের বিয়াম ল্যাবরটোরীয়াম নামের ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের শিক্ষক ও বাউসী গ্রামের বাসিন্দা। নিজ ধর্ম ত্যাগের বিষয়টি জানতে পেরে তার ‘মা-বাবা’ বড়ভাই সুমন চন্দসহ পরিবারের লোকজন স্কুলে গিয়েও প্রাণে হত্যার হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। যে কারণে সপ্তাহখানেক ধরে তিনি কর্মস্থলে না গিয়ে ভয়ে আত্মগোপনে রয়েছেন। নিরাপত্তা চেয়ে গত ৩১অক্টোবর বুধবার তিনি বিশ্বনাথ থানায় জিডি এন্ট্রি করেছেন, (ডিডি-নং ১৫৫৯)।

এরআগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর অ্যাডভোকেট মো. শফিকুল ইসলামের মাধ্যমে সিলেটের জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট আদালতে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন আব্দুল্লাহ মাসউদ। ওইদিন সিলেট মহানগর ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা সিহাব উদ্দিন ও দারুল হোদা স্কুল এন্ড মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা সিহাব উদ্দিনের নিকট কালিমা পড়ে ধর্মত্যাগের আনুষ্টানিকতা সম্পন্ন করেন।

আব্দুল্লাহ মাসউদ সকলের সহযোগীতা চেয়ে তিনি বলেন, হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করায় পরিবারের লোকজন তার কর্মস্থলে গিয়ে হুমকি ধামকি দেওয়ায় ভয়ে স্কুল ছেড়ে দিয়েছেন।

তবে, তার বড়ভাই সুমন চন্দ বলেন, প্রাণে মারার চেষ্টা তো দুরের কথা ধর্ম ত্যাগ করায় তারা কোন ভয়ভিতি দেখাননি এবং একটুও বিচলিত হননি।

স্কুলে গিয়ে হুমকির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন ‘বিয়াম ল্যাবটোরীয়াম’ স্কুলের প্রধান শিক্ষক মনিকাঞ্চন চৌধুরী। তিনি বলেন, দূর্গাপূজার পর শিক্ষক তপু চন্দ আর স্কুলে যাচ্ছেন না। তার বাড়ির লোকজনও তাকে খোঁজে না পাওয়ায় তারা স্কুলে এসে খোঁজ নিয়েছেন মাত্র।

বিশ্বনাথ থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, যেকোন প্রয়োজনে আব্দুল্লা মাসউদকে পুলিশি সহযোগীতা করা হবে।

Related posts