November 14, 2018

বিশ্বনাথের শামীম এখন রক্তের ফেরিওয়ালা

ছাত্রলীগ কর্মির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

IMG_20180827_194253মো.আবুল কাশেম,বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: যে বয়সে মোবাইল, ইন্টারনেট, খেলাধুলা, পড়ালেখা নিয়ে ব্যস্ত থাকার সময়। সেই সময়ে প্রতিদিন রক্ত খুঁজে বেড়ান বিশ্বনাথের ছাত্রলীগ কর্মি। হাজার ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে ইতিমধ্যে উপজেলার সবার মন জয় করে নেয়া ২২ বছরের সেই তরুণের নাম শামীম আহমদ। সে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সদর ইউনিয়নের জানাইয়া গ্রামের আবুল কালামের ২য় ছেলে ও উপজেলা ছাত্রলীগের একজন সক্রিয় কর্মি। তার সাথে কথা বলে জানা যায়, ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসের শেষের সপ্তাহে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে রক্তের অভাবে তার চোখের সামনে একজন রোগী মারা যাওয়ার দৃশ্য দেখে এ উদ্যোগ নেয় সে।

‘মনের ভয় দূর করুন, সেচ্ছায় রক্তদান করুন’ এমন শ্লোগানকে সামনে রেখে এ পর্যন্ত তার একার প্রচেষ্ঠায় ১হাজার ৫ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে দিয়েছে মুমুর্ষ রোগীদের। নিজের রক্তও দিয়েছে ১৯বার। প্রথমে রক্ত ফ্রি দিলেও এখন সে এক্সচেইঞ্জ সিস্টেমের মাধ্যমে রক্ত দেয়। এক ব্যাগ রক্তের বিনিময়ে রোগীর আত্মীয়স্বজন যে কেউ এক ব্যাগ রক্ত দেওয়ার ওয়াদা করতে হবে। এবং পরবর্তিতে যখন প্রয়োজন হবে তখন তিনি রক্ত দিবেন। এর কারণ হিসেবে সে জানায় অনেকেই রক্ত দিতে ভয় পান। ভয়ে নিজের আত্মীয়স্বজনকেও রক্ত দেন না।

সেচ্ছায় রক্তদাতা বাড়াতেই এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। তার স্বপ্ন আর সে একা নয় এখন থেকে তরুন সমাজকে একসাথে নিয়ে একটি সংগঠন করে সারা দেশে সংগঠনের শাখা ছড়িয়ে দেয়ার। তার প্রতিজ্ঞা রক্তের অভাবে কাউকে মরতে দিবেনা।

এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিশ্বনাথের রক্তদাতা সংগঠন বিশ্বনাথ বন্ধুসভার সভাপতি ডাঃ প্রবীর কান্তি দে পিংকু বলেন, এই তরুনের এ উদ্যোগ সারা জাগিয়েছে উপজেলায়। তাকে দেখে অনেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে উদ্যোগী হচ্ছেন।

বিশ্বনাথ থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, তার অনুরোধে আমাকেও রক্ত দিতে হয়েছে। মানবতার কল্যাণে তার এ প্রচেষ্ঠা প্রশংসার দাবীদার।

Related posts