April 25, 2019

বিএনপি কার্যালয়ে হামলা, সংঘর্ষ!

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় দখল করতে গিয়ে ছাত্রদল কর্মীদের ধাওয়া খেয়ে পালিয়েছে বহিরাগত একটি গ্রুপ। তথাকথিত ‘আসল বিএনপি’ নামধারী ওই গ্রুপটির সঙ্গে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিকাল পৌনে চারটায় ছাত্রদল কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে ফকিরাপুল মোড়ের কাছে জড়ো হয় শতাধিক লোক। সেখানে তারা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় দখলের হুমকি দিয়ে স্লোগান দিতে থাকে। এরপর হাতে স্ট্যাম্প ও মাথায় পতাকা বেঁধে পল্টন থানার সামনের এলাকা থেকে জিয়াউর রহমানের নামে স্লোগান দিতে দিতে তারা বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয় অভিমুখে মিছিল নিয়ে যায়।

সেখানে পুলিশের একটি টিম থাকলেও তাদের ভূমিকা ছিল নিষ্ক্রিয় দর্শকের। মিছিলটি নয়াপল্টনের কড়াই গোশত রেস্টুরেন্টের কাছে এলে দলীয় কার্যালয়ের সামনে থাকা ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন সোহান, আবু আতিক আল হাসান মিন্টু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, যুগ্ম সম্পাদক মফিজুর রহমান আশিক, ফয়েজ উল্লাহ ফয়েজ, মিয়া মো. রাসেল, অর্থ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল নেতা শাহনেওয়াজ প্রমুখ ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে বহিরাগতদের ধাওয়া দেয়। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

একপর্যায়ে ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা-কর্মীদের পিটুনির মুখে পালিয়ে যায় বহিরাগত মিছিলকারী দলটি। এতে একজন সাংবাদিক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল নেতা রজিবুল ইসলামসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি ছুড়ে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। তবে মিছিলে অংশ নেননি নিজেকে ‘আসল বিএনপির পরিচয়দানকারী’ কামরুল হাসান নাসিম। এদিকে, সংঘর্ষ চলাকালে কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন বিএনপির দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ। ঘটনার পর কার্যালয়ে যান দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (গণমাধ্যম) মারুফ হোসেন সরদার বলেন, ‘ব্যাপারটা কি কারণে ঘটেছে জানি না। আমরা খোঁজ নিয়ে দেখছি।’

দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও পুলিশের তৎপরতার কারণে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে নয়াপল্টনে। যে কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সেখানে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্তি পুলিশ।

এদিকে বিএনপি কার্যালয় দখলের উদ্দেশে মিছিলের ব্যাপারে তথাকথিত ‘আসল বিএনপি’র নেতা কামরুল হাসান নাসিম বলেন, বেলা সোয়া তিনটার দিকে আমাদের কিছু উজ্জীবিত তরুণ কথা বলার জন্য পার্টি অফিসে যাচ্ছিল। কিন্তু নাশকতার অসুখে ধরা খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপির লোকজন তাদের হামলা করেছে। এতে আমাদের ছয়জন আহত হয়েছে। তারা কি উদ্দেশে বিএনপির অফিসে যাচ্ছিলেন- এমন প্রশ্নের প্রশ্নের জবাবে নাসিম বলেন, সে রকম কিছু না। তারা কিছু কথাবার্তা বলতে চেয়েছিল। কার সঙ্গে কথাবার্তা বলতে চেয়েছিল বা বিএনপি নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের পার্টি অফিসে আমরা যাবো, কারও সঙ্গে কথা বলে যেতে হবে কেন?
সরকারের ছত্রছায়ায় বিএনপি কার্যালয় দখলের চেষ্টা: রিজভী

এদিকে সরকার ও সরকারি দলের ছত্রছায়ায় নাম পরিচয়, গোত্রহীন উচ্ছিষ্ট কিছু ভাড়াটিয়া টোকাই বিএনপির মতো একটি বৃহৎ দলের রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলা ও দখলের চেষ্টা চালিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন দলটির দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ। গতকাল সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, বিএনপির বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্র করছে সরকার। ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচন এবং কারচুপির পৌর নির্বাচন থেকে জনগণের দৃষ্টি ভিন্নদিকে প্রবাহিত করতেই সরকার পুলিশের সহায়তায় এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। ৫ই জানুয়ারি বিএনপির যে সমাবেশ করার কথা সেটাকে ভণ্ডুল করার একটি অপচেষ্টা এ ঘটনা।

রিজভী আহমেদ প্রশ্ন রেখে বলেন, আপানারা কি কেউ এদের নাম জানেন, প্রকৃত বিএনপি নামে নাকি একটি রাজনৈতিক দল আছে? তিনি বলেন, আমরা দুপুরের পর থেকে এ ধরনের হামলার একটি খবর পেয়ে পুলিশকে অবহিত করেছি। কিন্তু পুলিশ তাতে কোন পদক্ষেপ নেয়নি। পুলিশি পাহারায় পরে তারা হামলা চালায়। রিজভী বলেন, এই ধরনের ঘটনা শুধু অনভিপ্রেতই নয়, সরকারি নীলনকশার অংশ। হামলায় সাংবাদিকসহ ছাত্রদল ও যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রায় ১৫ জন আহত হয়েছে। হামলার বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেয়া হবে কিনা জানাতে চাইলে রিজভী বলেন, আমরা পল্টন থানায় লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছি।

সংবাদ সম্মেলনে দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি উপস্থিত ছিলেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts