November 14, 2018

বাসায় না পেয়ে ফিরে এলেন আইভীঃ আর অপেক্ষায় আছে বিএনপি (ভিডিও)

রফিকুল ইসলাম রফিক, নারায়ণগঞ্জ ব্যুরো চীফঃ নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভি বলেছেন , তিনি দলের সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে একসাথে কাজ করতে চান। তিনি বলেন আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। এর মধ্যে মতের পার্থক্য থাকতেই পারে। কিন্তু দল আমাকে মনোনয়ন প্রদান করেছে এবং আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছি।

সুতরাং নেতা-কর্মীদের মধ্যে পাথর্ক্য থাকবে না এবং তারা সবাই দলের পক্ষে হয়ে কাজ করবেন বলে আমার বিশ্বাস। ডাঃ আইভি বলেন আমি মহানগর কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেনের বাসায় গিয়ে তাকে আমার পক্ষে নির্বাচনে কাজ করার আহাবান করবো। পাশাপাশি সাংসদ শামীম ওসমানকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, দলের প্রতি আনুগত্য থাকলে তিনিও আমার পক্ষে কাজ করবেন। আমি তার কাছেও ভোট চাইতে যাবো।

আইভী তার রাজনৈতিক জীবনের অতীতের কথা স্মরণ করে বলেন, আমি গত ১২বছরে সিটি করপোরেশনে দলবাজির উর্ধে রেখে কাজ করেছি। দলের সাথে আমি ছিলাম এবং আছি। দল এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে মনোনয়ন প্রদান করায় কৃতঞ্জতা প্রকাশ করেন। পরে মেয়র আইভি মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং দলের অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী মেয়র প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের বাসায় যান। তবে আনোয়ার হোসেনসহ তার পরিবারের কেউ এসময় বাসায় উপস্থিত ছিলেন না। এদিকে এলাকাবাসী ও নেতাকর্মীরা দলে দলে আইভির বাড়িতে গিয়ে তাকে অভিনন্দন জানান।

ভিডিওঃ সব দায়িত্ব উনাকে দিতে চাই, আর সে আমার ভোটার, যাব না কেন, যাবঃ আইভী

জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আবদুল হাই বলেন, দল যেহেতু আইভীকে নৌকা প্রতীক দিয়েছে তাই আমরা দলের প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করব। দলের অভ্যন্তরে মতবিরোধ থাকতেই পারে। তবে এই নির্বাচনে এর কোন প্রভাব পড়বে না।

অন্যদিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করবে। এ নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে আগ্রহ লক্ষ্য করা গেলেও এখন পর্যন্ত মেয়র নাম ঘোষনা না করায় কে প্রার্থী হচ্ছেন তা নিয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ পর্যন্ত দলের জেলা কমিটির সভাপতি এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, বিএনপি থেকে তিনবার নির্বাচিত সাবেক সাংসদ এডভোকেট আবুল কালাম, নারায়ণগঞ্জ আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন ও মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক এটিএম কামালের শোনা যাচ্ছে।

এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার তার বাসভবনে সাংবাদিকদের জানান, দল যদি তাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে তিনি নির্বাচন করতে প্রস্তত। তবে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে তিনি নির্বাচন করবেন না। তিনি বলেন, অতীতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সকল নির্দেশ আমি অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছি। এবারো করব এতে কোন সন্দেহ নেই। তবে আজ অখবা কালকের মধ্যে এ বিষয়ে দলের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠক হবে। সেখান থেকেই বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে। তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে, বেগম খালেদা জিয়া এই ঘোষণা দেয়ার পর থেকে আমরা কর্মীদের সাথে যোগাযোগ রেখে চলেছি। ওয়ার্ড পর্যায়ে আমরা সাংগঠনিকভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষেই তিনি কাজ করবেন বলে ঘোষণা দেন।

জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান মেয়র পদে নির্বাচন করার জোর প্রত্যাশা ব্যক্ত করে জানান, দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া তাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিলে তিনি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে প্রস্তুত রয়েছেন। তিনি বলেন, বিএনপি এই নির্বাচনকে এসিড টেস্ট হিসেবে দেখছে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারের মনোভাব বোঝা যাবে।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামাল নির্বাচনে অংশ গ্রহণের ব্যাপারে তার পূর্বের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলেন, আমরা নেত্রীর নির্দেশের অপেক্ষায় আছি। ( সংবাদের বাকী অংশ নীচে) 

ভিডিওঃ  সম্পূর্ণ নির্ভর করে দলের সিদ্ধান্তের উপর 

এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বিতরণের তৃতীয় দিনে আজও জেলা নির্বাচন অফিস ছিল ফাঁকা। শনিবার সরকারি ছুটির দিন হওয়ায় এবং ব্যাংক বন্ধ থাকার কারণে মাত্র একজন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছাড়া আর কাউকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে বা জমা দিতে দেখা যায়নি। এই নিয়ে মেয়র পদে এখন পর্যন্ত মাত্র একজন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৯৭ জন এবং সংরক্ষিত নারী আসনে ১৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

আজ শনিবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৯নং ওয়ার্ডের নতুন কাউন্সিলর প্রার্থী মো: শাহজালাল মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর জানান, বিজয়ী হলে তিনি সমাজের সেবামূলক কাজ করতে চান। তবে আর কোন প্রার্থীর আগমন না হলেও জেলা নির্বাচন অফিসে স্বাভাবিক নিয়মে কার্যক্রম চলে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সহকারি রিটার্ণিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তারিফুজ্জামান জানান, কোন প্রার্থী আসুক বা না আসুক ভোট পর্যন্ত নির্বাচন অফিস ২৪ ঘন্টা খোলা থাকবে। প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ বা জমা দেয়া ছাড়াও সার্বক্ষণিক যে কোন ধরণের তথ্যসেবা পাবে। তবে আগামীকাল রবিবার সাধারণ কার্য দিবসে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে প্রার্থীদের ব্যাপক আগমন ঘটবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন।
আগামী ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন। নারী পুরুষ মিলিয়ে ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৩৯২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রদান করবেন। এবার ১৬৪টি ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে।

নারায়নগঞ্জের আরো সংবাদঃ 

কাঁচপুর বিসিকে ট্যাক্স আদায়কারীদের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগঃ শিল্প-প্রতিষ্ঠান বন্ধের পথে

সরকারী বিধি থাকলেও অনিয়ম ভাবে সোনারগাঁও উপজেলার কাঁচপুর বিসিক শিল্পনগরীতে হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শিল্প মালিকদের ওপর হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারন করায় এখানকার শিল্প-প্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি সবুর খাঁন জানান, উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়ন পরিষদ ছোট-বড় শিল্প-কারখানার মালিকদের ১ লাখ টাকা থেকে দেড় লাখ টাকা হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণ করেন। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জেলার ফতুল্লা বিসিক ও রূপগঞ্জের জামদানী বিসিকের ট্যাক্স নির্ধারণ করা রয়েছে ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা। কিন্তু এ ইউনিয়ন পরিষদ অনিয়ম ভাবে ১০গুণ ট্যাক্স বেশি নির্ধারন করেছেন। ট্যাক্সের বোঝার কারণে অনেক শিল্প-কারখানা বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলেও তিনি মনে করেন। তাছাড়া ট্যাক্সের টাকা গ্রহেণের কোনো রশিদও প্রদান করা হচ্ছে না পরিষদ থেকে।
এদিকে, ট্যাক্সের টাকা পরিশোধ করতে অনীহা প্রকাশ করায় ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক শিল্প মালিকদের ট্রেড-লাইসেন্স দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। ফলে এখানকার শিল্প-প্রতিষ্ঠানের অপূরণীয় ক্ষতির আশংকা দেখা দিয়েছে। এদিকে, গত অর্থ বছরেও এ ইউনিয়ন পরিষদ বিসিক নগরীর প্রতিটি শিল্প-কারখানা থেকে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা ট্যাক্স নেয়া হয়েছিল। এখানকার শিল্প-প্রতিষ্ঠান থেকে বিসিক কর্মকর্তা সার্ভিস চার্জ হিসেবে প্রতি মাসে ট্যাক্স আদায় করে নিচ্ছে।
এ ব্যাপারে অত্র বিসিক শিল্পনগরীর মালিক সমিতির সভাপতি সবুর খাঁনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়ার সাথে বৈঠক করেছেন। তিনি এ ব্যাপারে সুষ্ঠ ব্যবস্থা গ্রহন করার আশ্বাস প্রদান করেন শিল্প মালিক সমিতির প্রতিনিনিধিদের। কাচঁপুর বিসিক শিল্প মালিকরা জরুরীভিত্তিতে ইউনিয়ন পরিষদের ট্রেড-লাইসেন্স পাওয়ার জোর দাবি জানান।
এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর ও সচিব দেলোয়ার হোসেনের সাথে পৃথকভাবে যোগাযোগ করলে তারা অতিরিক্ত ট্যাক্স আদায়ের বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।
———–নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৭ নং ওয়ার্ড————-
নতুন ভোট কেন্দ্রের দাবিতে এলাকাবাসীর মানবন্ধন
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৭ নং ওয়ার্ডের ( সিদ্ধিরগঞ্জ) দক্ষিণ কদমতলী নয়াপাড়ায় নতুন ভোট কেন্দ্রের দাবিতে মানবন্ধন করেছে এলাকার ভোটাররা। গতকাল শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ- আদমজী সড়কের কদমতলী ভান্ডারীপুল এলাকায় এলাকার নারী- পুরুষ ভোটাররা এ মানবন্ধন পালন করেন।জানাগেছে, ৭ নং ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ১৫ হাজার এর মধ্যে দক্ষিণ কদমতলী নয়াপাড়া এলাকায় ভোটার রয়েছে সাড়ে ৮ হাজার। ৩ কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে গিয়ে বৃদ্ধা পুরুষ ও নারী ভোটাররা ভোট ভোট কেন্দ্রে যেতে নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন।এ ওয়ার্ডে কদমতলীতে একই জায়গায় ৪ টি ভোট কেন্দ্র থাকলেও কদমতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র ভবনটি ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ইতিপূর্বে বিদ্যালয়টি সীলগালা করেছে প্রশাসন। যার কারনে দক্ষিণ কদমতলী নয়াপাড়ায় হৃদয়মনি ক্রিয়েটিভ স্কুলে নতুন ভোট কেন্দ্রের জন্য ইতিমধ্যে এলাকার ৭৫০ জন ভোটারের স্বাক্ষরযুক্ত একটি অনুলিপি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র, জেলা ও উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে প্রদান করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে এলাকা পরিদর্শন করে হৃদয়মনি স্কুলে ভোট কেন্দ্রটি যথাযথ উপযুক্ত হওয়ায় ভোট কেন্দ্র স্থাপনের আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে স্থানীয় শিক্ষানুরাগী সমাজসেবক মোঃ রফিকুল ইসলাম ও মোঃ আলাউদ্দিন ভুঁইয়া জানান । এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে এবং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালযের ভোট কেন্দ্রটি বাতিল হওয়াতে এক সঙ্গে প্রায় ১৫ হাজার ভোটার অনুন্নত রাস্তাঘাট মাড়িয়ে ভোট দেওয়া কষ্ট সাধ্য ব্যাপার।একই এলাকায় ৩ টি ভোট কেন্দ্র হওয়াতে দক্ষিণ কদমতলী নয়ংাপাড়া এলাকার সাড়ে ৮ হাজার ভোটারদের ওই ভোট কেন্দ্রে যাতায়াত ব্যবস্থা অত্যন্ত নাজুক থাকাদক্ষিণ কদমতলী নয়াপাড়া এলাকায় হৃদয়মনি ক্রিয়েটিভ স্কুলে নতুন ভোট কেন্দ্র প্রদানের জন্য নির্বাচন কমিশনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন এলাকাবাসী। ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী রফিকুল ইসলাম বাবু বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে ৭৫০ জন লোকের স্বাক্ষর সংগ্রহ করে নতুন ভোট কেন্দ্র স্থাপনের জন্য সিটি করপোরেশন ও নির্বাচন কমিশনারের কাছে জোরালো আবেদন জানিয়ে আসছি। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ} তারিফুজ্জামান জানান এলাকাবাসীর আবেদনটি বিবেচনাধীন রয়েছে।

আইভীকে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়ায়
এনসিসি’র ৬ নং ওয়ার্ডবাসীর আনন্দ মিছিল

নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বর্তমান নাসিক মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়ায় নাসিক ৬ নং ওয়ার্ডবাসীর আনন্দ মিছিল করেছেন। গতকাল শনিবার বিকেল ৩ টায় আদমজী বিহারী কলোনী, চর সুমিলপাড়া, সোনামিয়ার মার্কেট, আইলপাড়া, এসও , বার্মা ষ্ট্রান্ডের এলাকাবাসী সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সদস্য মজিবর রহমানের নেতৃত্বে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ডের প্রায় ৫ শতাধীক আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও সাধারন ভোটাররা আনন্দ মিছিলটি সুমিলপাড়া রেল লাইন, আদমজী বাজার, সোনামিয়ার বাজার হয়ে মহাসড়ক দিয়ে এসও ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এসময় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা বলেন, নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বর্তমান মেয়র, নগর মাতা ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভীকে আসন্ন নাসিক নির্বাচনের আওয়ামীলীগ থেকে নৌকা প্রতিক মনোনয়ন দেওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান তারা। তারা আরো বলেন, নাসিক মেয়র আইভীকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মূল্যায়ন করেছেন নারায়নগঞ্জবাসী সারা জীবন মনে রাখবে। নাসিক নির্বাচনের আওয়ামীলীগের প্রার্থী মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিবেন নারায়নগঞ্জবাসী।

———নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির বিৃবতিতে দাবী ————-
সমন্বয়হীনতাই যানজটের অন্যতম কারণ
প্রাচ্যের ডান্ডিখ্যাত নারায়ণগঞ্জ শহর আজ অসহনীয় যানজটের কারণে খাঁচায় বন্দী। ১০ মিনিটের পথ অতিক্রম করতে ১ -১.৩০ ঘন্টা সময় লাগে। যানজটের প্রধান কারণগুলির মধ্যে একদিকে চাষাঢ়ায় অবস্থানরত ডাংক বাংলো, পুলিশ ফাঁড়ী, অন্য দিকে আন্তঃ জেলা বাস , ট্রাক শহরে প্রবেশ, ফিটনেসবিহীন যানবাহন, অবৈধ ইজি বাইক, মটর চালিত অবৈধ হাজার হাজার রিক্সা সহ অবাধ বিচরণ, যানবাহনের কোন নির্দিষ্ট ষ্টপেজের অনুপস্থিতি, ফুটপাত দখলে যাওয়ায় রাস্তা দিয়ে চলাচল ইত্যাদি কারণে শহর আজ অচল। আলোচনার এক পর্যায়ে চাষাঢ়ায় ত্রিমূখী ফুট ওভার ব্রীজ স্থাপনের দাবীটি জোরালো ভাবে আলোচিত হয়। পাশাপাশি মাদকে সয়লাব পাড়া মহল্লা। সমস্যাগুলি সমাধানে কর্তৃপক্ষের সমন্বিত কোন উদ্যোগ নেই – উল্লেখ পূর্বক নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি একটি স্মারক লিপি প্রদান করেন।
পৃথক আরেকটি স্মারকলিপি প্রদান করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) , নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা। যাতে নিষিদ্ধ ঘোষিত পলিথিনের প্রকোপ ও মৃত প্রায় দূষিত শীতলক্ষ্যার করুন চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। আইনের যথাযথ প্রয়োগে কর্তৃপক্ষের অনিহা, পরিবেশ অধিদপ্তরের নামমাত্র উপস্থিতি এবং মাঝে মধ্যে দূষণকারীদেরকে ও পলিথিন উৎপাদকদেরকে কিছু আর্থিক জরিমানা করে একপ্রকার বৈধতা দেয়া চাড়া কোন কার্যক্রম চোখে পড়ে না। স্মারকলিপিগুলিতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী , সিটি করপোরেশন, বি আর টি এ’র সমন্বিত গুরুত্ব তুলে ধরা হয়। নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন জেলা শাখার সভাপতি এডঃ এ. বি. সিদ্দিক এর নের্তৃত্বে গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থকে ঘন্টা ব্যাপী স্মারক লিপি প্রদান অনুষ্ঠানে সদ্য আগত নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক জনাব রাব্বি মিয়া প্রতিনিধি দলের বক্তব্য মনোযোগ সহকারে শুনে যথাযথ কার্য্যক্রম গ্রহণ সহ দ্রুত সমস্যাগুলি সমাধানের আশ্বাস প্রদান করে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
প্রতিনিধি দলে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিিিটর সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, বাপা এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ তারিক বাবু সহ আরো উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রাজ্জাক , এড. এ.কে. এম জাহিদুল হক দিপু, মোঃ সানোয়ার তালুকদার, মীর আনোয়ার হোসেন, মোঃ হাফিজুল হক, এডঃ সুমন মিয়া, নুরুল আমিন, মোঃ আসাদুল হক সরকার প্রমূখ।

Related posts