September 20, 2018

বালিয়াকান্দিতে ঘরে তালা দিয়ে পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

rajshaeরাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের বিলকাতলী গ্রামে সোমবার রাত ২টার দিকে জমিজমা সংক্রান্ত পুর্ব বিরোধের জের ধরে ঘরে তালা দিয়ে পরিবারের ১৫জন সদস্যকে পেট্রোল বোমা দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশ ১২টি পেট্রোল বোমা, তার সহ অন্যান্যে সরঞ্জামাদি উদ্ধার করেছে।
বিলকাতলী গ্রামের মৃত ইয়াদ আলীর ছেলে মুলামদি মন্ডল জানান, তার সাথে জমিজমা নিয়ে একই গ্রামের মিরাজ হোসেনের ছেলে মিঠুর সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে ১৫দিন পুর্বে তার বাড়ীর ঘরের পিছনের দিক থেকে সিদ কেটে প্রত্যেক রুমের দরজায় তালা মেরে জীবনে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ঘরে থাকা কিছু মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। সোমবার রাত ২টার দিকে মিঠু পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে ১৫-২০জন লোক নিয়ে আমার বাড়ীর ৩টি ঘরের দরজায় ও গ্রিলে তালা মেরে ঘরের চারপাশে ইলেক্ট্রনিক্স তার ও পেট্রোল বোমা রেখে পুড়িয়ে মারার পরিকল্পনা করে। আমার ছেলে ওয়াজেদ আলী টের পেয়ে মোবাইলের মাধ্যমে গ্রামের লোকজনের নিকট খবর দেয়। খবর পেয়ে লোকজন চিৎকার করে ছুটে আসলে মিঠু ও তার সহযোগিরা পালিয়ে যায়। ঘরের পাশে আগুন জ্বালানো দেখে ফেলে ওয়াজেদ আলী। খবর পেয়ে থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও আটকদেরকে তালা ভেঙ্গে উদ্ধার করেন। মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশ পেট্রোল বোমা ও তার উদ্ধার করেছে। এ ঘটনার পর থেকেই মিঠু পলাতক রয়েছে।
ওয়াজেদ আলী জানান, সে ঘরে পাশে মানুষের আনা গোনা দেখে লোকজনের নিকট ফোন করে। তারপর লোকজন চিৎকার করতে করতে এগিয়ে আসে। আগুন জ্বালানোর সময় জানালার ফাঁক দিয়ে মিঠুকে চিনে ফেলে।
মিঠুর মামা আঃ রশিদ জানান, এ ঘটনায় আমার ভাগ্নে মিঠু দোষী। তার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত।
বালিয়াকান্দি থানার অফিসার মোঃ জাহিদুল ইসলাম,পিপিএম জানান, ১০-১২টি পেট্রোলের বোতল ও তার উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি।

Related posts