January 16, 2019

‘বার্সার শেষ আটে ওঠা অন্যদের জন্য দুঃসংবাদ’

mesপ্যারিসে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ৪-০ গোলের ভরাডুবিতে লা লিগা চ্যাম্পিয়নদের ইউরোপ সেরার মঞ্চ থেকে বিদায় ধরে নিয়েছিল অনেকেই। তবে কাম্প নউয়ে বুধবার ফিরতি লেগে ৬-১ গোলের বিশাল জয়ে ইতিহাস রচনা করে বার্সেলোনা।

ম্যাচের ৮৮ মিনিটেও স্কোরলাইন ছিল ৩-১। তখনও বার্সেলোনার দরকার ছিল আরও তিন গোল। এরপরই জ্বলে ওঠেন নেইমার; সাত মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে ও একটি করিয়ে রেকর্ডের জন্ম দেন। দুই লেগ মিলিয়ে ৬-৫ ব্যবধানে এগিয়ে যায় লুইস এনরিকের দল।

আল্লেগ্রির মতে, বার্সেলোনার এই অর্জন ঐতিহাসিক। তবে  বাস্তবতাটাও তুলে ধরলেন তিনি, “পিএসজির প্রতি যথাযথ সম্মান রেখে বলছি, বার্সেলোনাকে কোয়ার্টার-ফাইনালে পাওয়াটা …আনন্দদায়ক কিছু নয়।”

“এটা প্যারিসের ঘটনার মতোই, যেখানে তারা (বার্সেলোনা) ৪-০ গোলে হেরেছিল। এমনটা প্রতি বছরে ঘটে না, এমনকি প্রতি পাঁচ বছরেও না।”

বার্সেলোনাকে ফেভারিট মেনে ইতালির এই কোচ বলেন, “চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বায়ার্ন মিউনিখ ও রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে এখন বার্সেলোনাও ফেভারিট।”

দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানো কাতালুনিয়ার দলটির প্রশংসায় পঞ্চমুখ আল্লেগ্রি।

Related posts