November 19, 2018

বাবা-মায়ের সামনে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা

215d0955-234d-46ba-bfc4-b3d5f4aeaa4b

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: পূর্ব শত্রুতার জের ধরে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পণ্ডিতসারে বাবা-মায়ের সামনে ছেলে রিগ্যান দেওয়ানকে (২৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। রবিবার গভীর রাতে ৭-৮ জন সন্ত্রাসী বাবুল দেওয়ানের ঘরে ঢুকে তার ছেলে রিগ্যানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। পরে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে রিগ্যানের মৃত্যু হয়। নড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একরাম আলী মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
নড়িয়া থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় নাছির ফকিরের সঙ্গে মিন্টু মালতের বিরোধ ছিল। গত ৬ মার্চ পণ্ডিতসার বাজারের নিকটবর্তী শিমুলতলায় উভয়পক্ষের উপস্থিতিতে একটি সালিশ বৈঠক হয়। এ সময় নাছির ফকিরের পক্ষ নিয়ে রিগ্যান দেওয়ান প্রতিপক্ষ মিন্টু মালতের সঙ্গে তর্কে লিপ্ত হয়। এরপর থেকেই মিন্টু মালতের লোকজন রিগ্যানসহ নাছির ফকিরের অন্য লোকজনদেরও বিভিন্নভাবে হুমকী দিয়ে আসছিল। গত ৭ মার্চ নাছির ফকির এসব বিষয় উল্লেখ করে মিন্টু মালতের বিরুদ্ধে নড়িয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে।

এর জের ধরে রবিবার রাত দেড়টার দিকে মিন্টু মালত, শাহ আলমসহ ৭-৮ জন সন্ত্রাসী ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে রিগ্যানের বাবা-মাকে জিম্মি করে এবং রিগ্যানকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়।

নিহত রিগ্যানের মা মনোয়ারা বেগম বলেন, নাছির ফকিরের সঙ্গে শত্রুতার জের ধরে মিন্টু মালতের লোকজন আমার ছেলেকে হত্যা করেছে। আমাদের চোখের সামনে ছেলেটাকে মেরে ফেললো, কিছুই করতে পারলাম না।

সংবাদ পেয়ে নড়িয়া থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এছাড়া হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ইমরান হাওলাদার নামে এক ইতালি প্রবাসীকে আটক করা হয়েছে।

ওসি একরাম আলী বলেন, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে।

Related posts