November 17, 2018

বাজিতপুরে পৌর নির্বাচনে অনিয়মের সমালোচনায় আশরাফ

89ঢাকাঃ  সদ্যসমাপ্ত পৌর নির্বাচনে জেলার বাজিতপুরে অনিয়ম ঘটনার কঠোর সমালোচনা করেছেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ অবাধ নির্বাচনে বিশ্বাসী। ভোট কারচুপি করে কখনও ক্ষমতায় যায়নি। নির্বাচনে জাল ভোট, ভোট ডাকাতি করে না। কিন্তু বাজিতপুরে যে ঘটনা ঘটেছে, তার কোনো দরকার ছিল না। কেননা, সেখানে আমরা পরাজিত হলে আমাদের ক্ষমতা চলে যেত না। সৈয়দ আশরাফ আরও বলেন, আমরা ভৈরব, কুলিয়ারচর, কটিয়াদী, হোসেনপুর ও কিশোরগঞ্জ সদরে বিজয়ী হয়েছি। বাজিতপুরে পরাজিত হলে কী আমাদের সব অর্জন শেষ হয়ে যেত? তাহলে কেন আমাদের ভোট ডাকাতি করতে হবে?

গতকাল বিকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে কিশোরগঞ্জ জেলা, সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মিসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এসব কথা বলেন। আগামী ইউপি নির্বাচন দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইউপি নির্বাচনে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা মিলে প্রার্থী ঠিক করবে। যোগ্য প্রার্থীকে তৃণমূল থেকে মনোনয়ন দেয়া হলে আওয়ামী লীগ ইউপি নির্বাচনেও বিজয়ী হবে। তাই এ দায়িত্ব পালনে সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহজাহানের সভাপতিত্বে কর্মিসভায় সৈয়দ আশরাফ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং যাবে। দেশের সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা রাখতে শেখ হাসিনাকে সব সময় দরকার। শেখ হাসিনার মতো সাহসী বীর নারী পৃথিবীতে আর নেই মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমিও অনেক দিন ধরে তাকে পাশে থেকে দেখে আসছি। তার ওপর বারবার আঘাত এসেছে। কিন্তু আল্লাহ সহায় রয়েছেন বলে মৃত্যুর দুয়ার থেকেও তিনি ফিরে এসেছেন।

পৃথিবীর ইতিহাসে আমরা অনেক বীর নারীর কথা জেনেছি। কিন্তু শেখ হাসিনার মতো সাহসী বীর নারী পৃথিবীতে আর নেই। কর্মিসভায় অন্যদের মধ্যে সংরক্ষিত আসনের এমপি দিলারা বেগম আছমা, জেলা পরিষদ প্রশাসক অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমএ আফজল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক পিপি শাহ আজিজুল হক, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মাহমুদ পারভেজ, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অজয় কর খোকন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. আতাউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শরীফ সাদী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ওদিকে সকালে কিশোরগঞ্জ জেলা চেম্বার অব কমার্সের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সৈয়দ আশরাফ অর্থমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রণালয় জন্ডিতে আক্রান্ত বলে মন্তব্য করেন। সার্কিট হাউসে অনুষ্ঠিত ওই সভায় তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রণালয় জন্ডিসে আক্রান্ত, বাংলাদেশ ব্যাংকও জন্ডিসে আক্রান্ত। জনপ্রশাসনমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর কোন দেশে দুই ডিজিটের সুদ নেই। সুদের এ উচ্চহার ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারে অন্যতম প্রতিবন্ধক। পুজি না হলে বিনিয়োগ আসবে কোথা থেকে? এরপরও ব্যবসায়ীরা দেশের অর্থনীতির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। অর্থনীতি চাঙ্গা ও সচল রেখেছেন।

মানবজমিন
দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts