September 22, 2018

‘বাংলাদেশ সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে’

ক্রিকেটকে ভালোবেসে পুরো দেশ একসাথে উল্লাসে ফেটে পড়ে। আবার চোখের জলেও ভেসে যায় কখনো কখনো। দেশের সব মানুষের এমন অফুরন্ত ভালোবাসা আর খেলোয়াড়দের নৈপূণ্যে গেলো বছর ক্রিকেট ভেসেছে ইতিহাস সাফল্যে। সবাই এক সাথে চাইলে যে অনেক কিছুই সম্ভব, এ যেন তারই এক অনন্য উদাহরণ।

দেশের রাজনীতি নিয়ে কতই না কথা হয়ে থাকে। ঘুরে ফিরেই উঠে আসে রাজনীতিতে স্থিতিশীলতার কথা। সবাই মিলে চাইলে সেটিও অসম্ভব নয়। নতুন বছরে তেমন প্রত্যাশার কথাই জানালেন সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু আমাদের দ্বিধা, সংকট, বাঁধা এগুলো সেক্ষেত্রে অস্থিরতা সৃষ্টি করে। এগুলো যদি না থাকে ক্ষমতায় যারাই থাক না কেন, দেশ এগিয়ে যাবে। তখন সবাই রাজনীতিকে ভালোবাসবে এবং দেশকে ভালোবাসবে।

গেলো বছরের সু-বাতাস মিলেছে অর্থনীতিতেও। বিশ্ব ব্যাংকের হিসাবে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে এসেছে বাংলাদেশ। প্রবাসী আয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভেও রেকর্ড গড়েছেন।

তবে অর্থনীতির পরিসর বাড়াতে অবকাঠামো আর নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস, বিদ্যুতের কথা বারবারই জোর দিয়ে বলে আসছেন ব্যবসায়ীরা। তাই বিনিয়োগের পাশাপাশি অর্থনীতির পরিসর আরও বাড়াতে নতুন বছরে নতুন আশার সাথে কিছু চ্যালেঞ্জও দেখছেন অর্থনীতিবিদরা।

অর্থনীতিবিদ ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, আগামী ছয় মাস বিশেষ করে বাজেট পর্যন্ত, রাজস্ব আদায়, রপ্তানিকে ঠিক রাখা, রেমিট্যান্স আয়কে অব্যাহত রাখা এবং সব থেকে বড় হচ্ছে সরকারি ব্যয়কে গুণগত মানসম্পন্ন করতে হবে। উন্নয়নে বড় ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নে সফলতার পাশাপাশি যেটা সব কিছুকে প্রভাবিত করবে, সেটা হচ্ছে সাম্প্রতিক কালের সহিংসতা। বিশেষ করে আমি জঙ্গি সহিংসতা দেখেছি। আগামী বছরে যাতে এই সহিংসতাটা নিয়ন্ত্রণে থাকে। আর যদি নিয়ন্ত্রণে না থাকে তাহলে বিনিয়োগ পরিস্থিতি এবং স্বাভাবিক জীবনযাত্রা সবগুলোই হুমকির মুখে চলে যাবে।

সবকিছু মিলিয়ে দেশের মানুষ আসলে চায়, আরও একটু ভালো থাকার জন্য। তাদের বুকের মধ্যে আগলে রাখা চারা গাছটা বেড়ে উঠুক। নতুন বছরে এমনটাই প্রত্যাশা তাদের।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts