November 18, 2018

বাংলাদেশে জঙ্গি তৎপরতায় পাকিস্তান জড়িত : আ ম স আরেফিন সিদ্দিক

ষ্টাফ রিপোর্টার:বাংলাদেশের জঙ্গি তৎপরতার সঙ্গে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা জড়িত বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। তিনি বলেছেন, দীর্ঘ দিন ধরেই পাকিস্তান এ দেশে জঙ্গিবাদ প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এ কারণেই গত বছর পাকিস্তানের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করেছে।

সোমবার দুপুর ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি চত্বরে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে পাকিস্তানি কূটনীতিক ফারিনা আরশাদকে বাংলাদেশ থেকে প্রত্যাহার করে নেয় ইসলামাবাদ।

জঙ্গিদের অর্থায়নের অভিযোগে গত বছরের ১২ জানুয়ারি বনানী থেকে গ্রেপ্তার করা হয় পাকিস্তান হাইকমিশনের কনস্যুলার কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাজহার খানকে। এরপর পাকিস্তানের হাইকমিশন মুচলেকা দিয়ে ছাড়িয়ে নেওয়ার পর ৩১ জানুয়ারি তাকে ইসলামাবাদে ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

ঢাবি ভিসি বলেন, আমরা কখনো সন্ত্রাস মেনে নেইনি। বালাদেশে তা বারবার প্রমাণিত হয়েছে। এসময় দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে একযোগে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে রুখে দা্রঁড়ানোর আহবান জানান আরেফিন সিদ্দিক।।

জঙ্গিবাদ ও জঙ্গি তৎপরতার বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে এ মানব বন্ধনের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারী, সিনেট সদস্য, সিন্ডিকেট সদস্য এবং হল প্রাধ্যক্ষরা এতে অংশ নেন।

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি করে ভিসি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড হলে বা এর সঙ্গে সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হবে’।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান, প্রো-উপাচার্য(শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরিন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক এমদাদুল হক, সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্য বাহালুল মজনু চুন্নু, শিক্ষক সমিতির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. শিবলি রুবাইয়াতুল ইসলামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণী ও চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারীরা।

Related posts