September 22, 2018

বাংলাদেশের আইসিটি সেক্টরে বিনিয়োগে মার্কিন ব্যবসায়ীদের আগ্রহ

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বিশেষ সংবাদদাতাঃ  যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের আইসিটি সেক্টরে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে তাদের গভীর আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেছেন। ১৯৫৫ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট আইজেন হাওয়ার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতনামা থিংকট্যাংক ”বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্ট্যান্ডিং” (ইঈওট) এর সহযোগিতায় ২৮ এপ্রিল ২০১৬ আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে (জড়ঁহফঃধনষব উরংপঁংংরড়হ)  তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী  জুনাইদ আহ্মেদ পলক, এমপি বক্তব্য প্রদান করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে বৈঠকটি শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ”ডিজিটাল বাংলাদেশ” এর স্বপ্নের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন যে বিদেশী বিনিয়োগ আকর্ষণের লক্ষ্যে নতুন উদ্ভাবনী শক্তি ও উদ্যোক্তাদের কাজে লাগিয়ে হাই-টেক পার্ক ও আইটি পার্ক স্থাপনসহ বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। প্রতিমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কোম্পানীর উপস্থিত প্রতিনিধিদের প্রতি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক আইসিটি ক্ষেত্রে প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা গ্রহণের উদাত্ত আহবান জানান। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আইটি ক্ষেত্রে ব্যাপক সম্ভাবনা সম্বলিত ডিজিটাল প্রেজেন্টেশনও উপস্থাপন করা হয়।
প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্য প্রদানের পরে একটি প্রাণবন্ত প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেন।

এসময় যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাবনাময় বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের তথ্যবহুল উত্তর প্রদান কালে প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যবৃন্দও অংশগ্রহণ করেন। গোলটেবিলে যে সমস্ত যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানী ইতোমধ্যে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করেছে তাদের প্রতিনিধি ছাড়াও সম্ভাব্য বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের নির্বাহীরাও অংশগ্রহণ করেন যা  বাংলাদেশে বর্তমানে বিরাজমান উদার বিনিয়োগের পরিবেশ থেকে উপকৃত হবার ক্ষেত্রে তাদের গভীর আগ্রহের ইঙ্গিত বহন করে।
গুরুত্বপূর্ণ এই গোলটেবিল আলোচনার পাশাপাশি দুটো সমঝোতা স্মারক (গড়ট) স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (ইঈঈ) এবং আমেরিকান এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশী ইঞ্জিনিয়ার ও স্থপতি (অঅইঊঅ) এর মধ্যে একটি গড়ট স্বাক্ষরিত হয়। এসময় তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক, অঅইঊঅ ডধংযরহমঃড়হ উঈ ঈযধঢ়ঃবৎ এর সভাপতি  গোলাম মাওলা,  ফয়সাল কাদের এবং  শাহ আহমেদ উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী সাইবার প্রতিরক্ষা, ডাটা সেন্টার, কল সেন্টার এবং আউটসোর্সিং-এই চারটি বিষয়ে সহযোগিতার ব্যাপারে ঐকমত্য হয়। বাংলাদেশের আইসিটি সেক্টরে স্টার্ট-আপ প্রকল্প তৈরির ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য এঅচ, ইঈঈ এবং ইঅঝওঝ এর মধ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় গড়ট স্বাক্ষরিত হয়।

পরে প্রতিমন্ত্রী নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশী গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে আইসিটি সেক্টরে বর্তমান সরকারের অনুসৃত নীতিমালা তুলে ধরেন।

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক অথরিটি ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এর সহযোগিতায় উক্ত গোলটেবিল বৈঠক এর আয়োজন করে।  নিউইয়ক বাংলাদেশ কনস্যুলেট কনসাল জেনারেল শামীম আহসান,এনডিসি, ওয়াশিংটন ডিসি বাংলাদেশ দূতাবাস মিনিস্টার (ইকোনোমিক), শাহাবউদ্দিন পাটোয়ারী,  বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম, কালিয়াকৈর হাই-টেক পার্ক প্রজেক্ট প্রজেক্ট ডিরেক্টর এএনএম শফিকুল ইসলাম,   বেসিস সভাপতি শামীম আহসান এবং   প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় পলিসি উপদেষ্টা, অ২১ প্রজেক্ট অনির চৌধুরী অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন। গোলটেবিল বৈঠকটি নৈশভোজের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৩০ এপ্রিল ২০১৬

Related posts