November 18, 2018

বাঁচা-মরার ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই কলকাতার

স্পোর্টস ডেস্কঃ  প্লে-অফ নিশ্চিত করা সানরাইজার্স হায়দ্রবাদের লক্ষ্য শীর্ষ দুইয়ে থেকে সরাসরি কোয়ালিফায়ার ম্যাচ খেলা। অন্যদিকে, প্লে-অফ নিশ্চিত করতে কলকাতার নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) জয়ের বিকল্প নেই। সাকিব-গম্ভীরদের জন্য এটি বাঁচা-মরার ম্যাচও বটে! এমনই পরিসংখ্যানে গ্রুপ স্টেজে নিজেদের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে হায়দ্রাবাদ-কলকাতা। আজ রবিবার ইডেন গার্ডেনসে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৪টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচটি শুরু হবে। একই দিনের অপর ম্যাচে রাত সাড়ে ৮টার ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের বিপক্ষে মাঠে নামবে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা গুজরাট লায়ন্সের সংগ্রহ পূর্ণ ১৪ ম্যাচে ১৮। এক ম্যাচ কম খেলা সানরাইজার্স ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অবস্থান করছে। এখন পর্যন্ত এই দুই দলেরই প্লে-অফ নিশ্চিত। সমান ম্যাচে ১৪ পয়েন্টে তিনে বেঙ্গালুরু ও একই পয়েন্টে চারে কলকাতা। দিল্লি ও সবকটি ম্যাচ সম্পন্ন করা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের পয়েন্টও সমান ১৪। তবে নেট রাট রেটে সবার চেয়ে এগিয়ে বিরাট কোহলির বেঙ্গালুরু। এ মুহূর্তে শীর্ষ ছয় দলের নেট রান রেট যথাক্রমে -০.৩৭৪, +০.৩৫৫, ০.৯৩০, +০.০২২, -০.১০২, -০.১৪৬।

মুস্তাফিজ-ওয়ার্নারদের সানজার্সের কাছে হেরে গেলেও কলকাতার প্লে-অফে উঠার সম্ভাবনাটা শেষ হয়ে যাবে না। সেক্ষেত্রে দিল্লির বিপক্ষে জিততে হবে বেঙ্গালুরুকে। এতে কলকাতা, দিল্লি ও মুম্বাইয়ের মধ্যে যে দল রান রেটে এগিয়ে থাকবে তাদেরই শীর্ষ চার নিশ্চিত হবে। কিন্তু, দিল্লি জিতলে জিততে হবে কলকাতাকেও। অন্যথায়, নেট রান রেটের সুবিধায় বেঙ্গালু‍রুই এগিয়ে থাকবে।

টুর্নামেন্টে প্রথম দেখায় নিজেদের মাঠেই কলকাতার কাছে আট উইকেটের বড় ব্যবধানে হার মানে সানরাইজার্স। অন্যদিকে, ঘরের মাঠে ১৯১ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েও কুইন্ট ডি ককের শতকে ভর করে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে সাত উইকেটের দুর্দান্ত জয় পায় দিল্লি। ইনজুরি আক্রান্ত আন্দ্রে রাসেল ফিট না থাকলে তার জায়গায় নিউজিল্যান্ড অলরাউন্ডার কলিন মুনরো অথবা অস্ট্রেলিয়ান ‘বিগ হিটার’ ক্রিস লিন কলকাতার একাদশে থাকতে পারেন। অপরদিকে, অপরিবর্তিত দল নিয়ে মাঠে নামতে পারে হায়দ্রাবাদ।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/২২ মে ২০১৬

Related posts