November 19, 2018

বছরের আলোচিত নির্বাচন

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও ও রূপগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন ছিল বছরের আলোচিত নির্বাচন। কারণ এ দুটি পৌরসভার মধ্যে সোনারগাঁয়ে দলের মনোনয়ন নিয়ে সবচেয়ে বেশী নাটকীয়তা হয়েছে।

এছাড়া এ দুটি পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ ও নৌকার দলীয় প্রতিক থাকায় নির্বাচন বেশ জাকজমকপূর্ণ হয়ে উঠে। এর মধ্যে সোনারগাঁয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে বেশ তুলকালাম কা- ঘটেছে। শেষ পর্যন্ত এ পৌরসভাতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর জয় হয়েছে। যদিও সকাল থেকে কেন্দ্র দখল নিয়ে নানা ধরনের গোলযোগ হয়েছে।

অন্যদিকে রূপগঞ্জের পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। প্রকাশ্য ভোট দিতে দেখা গেছে সেখানে। বুধবার সেখানে দেখা গেছে প্রকাশ্য ভোট দেওয়ার চিত্র। সকাল পৌনে ১১টায় রূপগঞ্জের তারাব পৌরসভার কর্ণগোপ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কোন ভোটার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। মিনিট দশেক বাইরে অবস্থান করে ভোট কেন্দ্রের বুথে প্রবেশের সময়ে হঠাৎ করে সোরগোল। কারণ মেয়র প্রার্থী হাসিনা গাজী একটি পাজারো গাড়ি থেকে নেমেছেন। মুহূর্তের মধ্যে কেন্দ্রের আশেপাশে থাকা শ খানেক যুবককে লাইন ধরানো হলো। মেয়র প্রার্থী সানগ্লাস পরে বুথে প্রবেশ করলেন। ফটো সেশনের জন্য সাংবাদিকদের সামনে পরিস্থিতি জানতে চাওয়া হলো। বিএনপি বিহীন অন্য এজেন্টদের সুন্দর জবাব ‘ভালো।’ তবে মেয়র প্রার্থীর উপস্থিতিতেই ঘটলো ন্যাক্কারজনক ঘটনা।

কারণ কিছুক্ষণ আগে যাদের লাইনে দাঁড় করানো হয়েছিল তাদেরকে দেখা গেল ব্যালট নিয়ে নিজের ইচ্ছেমত সীল মারতে। উৎসুক সাংবাদিকেরাও আগ্রহ নিয়ে বুথে প্রবেশ করার পরে তাদের হাতেও দেওয়া হয় ব্যালট পেপার। প্রার্থীর সঙ্গে থাকা লোকজনদের পক্ষ থেকে বলা হয় ‘ইচ্ছে হলো মারতে পারো।’ কিছুক্ষণ পর পাঞ্জাবী পরিহিত প্রিজাইডিং অফিসার এ দৃশ্য দেখে ‘নাউজুল্লিাহ’ বলে দ্রুত কাজ শেষ করতে বলেন। মাত্র ১০ মিনিটে ভরে যায় ৫টি ব্যালক বাক্স যেখানে সবগুলোতে নৌকার উপরেই ছিল সীল।

যদিও সকালেই কেন্দ্র দখল ও কারচুপির অভিযোগ তুলেছিলেন তারাবতে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নাসিরউদ্দিন ও বিদ্রোহী প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ভূইয়া। তাদের মধ্যে নাসির দুপুর সোয়া ২টায় অভিযোগ করেন ক্ষমতাসীনদের কারণে তারা নির্বাচনে থাকতে পারেনি।

এদিকে সোনারগাঁও পৌরসভা নির্বাচনে বেসরকারী ফলাফলে নির্বাচিত হয়েছেন জগ প্রতীকের আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র সাদেকুর রহমান ভূইয়া। ৯টি কেন্দ্রে প্রাপ্ত ফলাফলে তিনি পেয়েছেন মোট ৯ হাজার ১১১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি পেয়েছেন ৬ হাজার ১৮০ ভোট। অপরদিকে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রতীকের প্রার্থী মোশারফ হোসেন তৃতীয় হয়েছেন।

সোনারগাঁও পৌরসভায় নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন লড়েন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট এটি ফজলে রাব্বী (নৌকা), বিএনপির মোশারফ হোসেন (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বি ত বর্তমান মেয়র সাদেকুর রহমান (জগ) ও জাহিদুল আজাদ নজরুল (নারিকেল গাছ)।

রূপগঞ্জের তারাব পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মিসেস হাসিনা গাজী  (নৌকা প্রতিক) ৩৯ হাজার ৮২১ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে বিজয়ী হয়েছেন। প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি সমর্থিত নাসির উদ্দিন ভূইয়া (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৫ হাজার ৯৪৪ , ইসলামী আন্দোলনের শিব্বির আহাম্মেদ (হাত পাখা) পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৯ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী (জগ) পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৮৪ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব (কম্পিউটার) পেয়েছেন ১৬৬ ভোট।
এর আগে দুপুর আড়াইটার দিকে, নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি, ভোট ছিনতাই, কেন্দ্র দখল ও জালভোটের অভিযোগ এনে পুনরায় ভোট প্রদানের দাবী জানিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী নাসির উদ্দিন ভূইয়া।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts