November 20, 2018

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষন আজ বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ ॥ ডা. দীপু মনি

44

একে আজাদ, চাঁদপুর : যুবলীগের ৪৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং ইউনেস্কো কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্ব ঐতিহ্যের অন্তর্ভূক্ত হওয়ায় আলোচনা সভা ও আনন্দ র‌্যালী করেছে চাঁদপুর পৌর ও সদর উপজেলা যুবলীগ। শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয় সম্মূখ থেকে র‌্যালিটি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সামনে এসে শেষ হয়। পরে সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।

তিনি বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আমরা স্বাধীনসার্বভৌম বাংলাদেশ পেতাম না। আজকের এই দিনে আমরা বঙ্গবন্ধুসহ ৭১ সনের রণাঙ্গনের সকল শহীদের রূহের মাগফেরাত কামনা করছি। এর পাশাপাশি ৭৫ সনের ১৫ আগস্ট সহ অন্যান্য সময়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতে নিহত সকল শহীদের প্রতিও গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, তারা তখন শুধু একজন রাষ্ট্র প্রধানকে হত্যা করেননি, তারা আমাদের স্বাধীনতাকে হত্যা করেছে। বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা পরবর্তি সময়ে যুদ্ধবিদ্ধস্ত বাংলাদেশকে গড়ে তোলার জন্য যে পরিশ্রম করেছেন তা অকল্পনীয়। ৭৫ পরবর্তি সময়ে স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে জয়বাংলা ও বঙ্গবন্ধুর নাম উচ্চারণ করতে দেয়া হয়নি। স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা সেদিন দেশকে পাকিস্তানি রাষ্ট্রে পরিনত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত ছিল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য (ওয়ার্ল্ডস ডকুমেন্টারি হেরিটেজ) হিসেবে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেয়ায় আমরা সবাই গর্বিত। অথচ জিয়াউর রহমান ও বিএনপি জামায়াত এ ঐতিহাসিক ভাষনটিকে সেদিন দেশবাসীকে শুনতে দেয় নি। অথছ এই ভাষণ আজ বিশ্ব ঐতিহ্যের একটি অংশ হিসেবে দাড়িয়ে বাঙ্গালী জাতীকে গর্বিত করে তুলেছে। এই ভাষণ ছিল বাঙ্গালী জাতীর অনুপ্রেরণার উৎস। আর আজ এই মহান নেতার ভাষণ বিশ্বের নির্যাতিত নিপীড়িত, মুক্তিকামী, স্বাধীনতাকামী মানুষের প্রেরণার উৎস হয়ে আজিবন রয়ে যাবে।

11111

ডা. দীপু মনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে আওয়ামী লীগ আবারো ঘুরে দাড়িয়েছে। শেখ হাসিনা এদেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে তিনি পিতার স্বপ্ন সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় জীনব বাজি রেখে কাজ করে যাচ্ছেন। তার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, তথ্য-প্রযুক্তি, কৃষিখ্যাত সহ সকল সেক্টরে এগিয়ে যাচ্ছে।
দেশের একজন মানুষও আজ না খেয়ে থাকে না। দেশের উন্নয়নের এই অগ্রযাত্রকে ধরে রাখতে হলে আগামী দিনেও নৌকার বিজয়কে নিশ্চিত করতে হবে। আর এজন্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী আওয়ামী লীগের প্রতিটা নেতাকর্মীকে ঐকবদ্ধ থাকতে হবে।

পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক আব্দুল মালেক শেখের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সাবেক সহ-সভাপতি ইউসুফ গাজী, আওয়ামীলীগ নেতা ডা. জে আর ওয়াদুদ টিপু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. জহিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, শামছুল হক মন্টু পাটওয়ারী, এড. মজিবুর রহমান ভূঁইয়া।

সদর থানা যুবলীগের আহ্বায়ক হুমায়ন কবির সুমন এর পরিচালনায় জেলা আইজীবি সমিতির সভাপতি এড. বিনয় ভূষন মজুমদার, জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা মাসুদা নুর খান, জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য মুক্তিযুদ্ধা আবু তাহের পাটওয়ারী, মাসুদুর রহমান নান্টু, পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাধা গোবিন্দ ঘোষ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, সাধারণ সম্পাদক আলী আরশ্বাদ মিয়াজী, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বাবুল, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগ সভাপতি শাহিদা বেগম, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, ঝন্টু দাস, আব্দুল হান্নান সবুজ, শহর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সফিকুর রহমান, ইকবাল হোসেন বাবু পাটওয়ারী, সদস্য কামরুল ইসলাম টিটু, রাজিব চৌধুরী, নূর রহমান এনার, প্রকাশ পাল, স্বপন পাটওয়ারী, ওমর ফারুক আজমির, কবির চৌধুরী, শিপন পাটওয়ারী, আসাদুজ্জামান সুমন, কালা বেপারী, লিজন পাটওয়ারী, গোতম ঘোষ, জাহাঙ্গীর ঢালী, জাহাঙ্গীর খন্দকার, শামিম গাজী, নজরুল ইসলাম, সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. তাজুল ইসলাম মিয়াজী, সদস্য মোস্তফা মোল্লা, মোরশেদ আলম মিয়া, সেলিম মাল, ফারুক বেপারী, ইকবাল হোসেন পলাশ, মফিজ ঢালী, জাহাঙ্গীর কবির কিশোর, মহসীন পালওয়ান, খালেক শেখ, তাফু মাল, নয়ন গাজী, ফরিদ খান, শাহজাহান মোল্লা, রাসেল কাজী, শাহজালাল বন্দুকসী, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আতাউর রহমান পারভেজ, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এ বিএম রেজওয়ান, সাধারণ সম্পাদক নাছির গাজী, পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি সোহেল রানা, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম পাটওয়ারী রবিনসহ জেলা, সদর, পৌর যুবলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Related posts