November 18, 2018

বখাটে প্রেমিক রিপনকে ঠেকাবে কে?

রৌমারীতে প্রেমের ফাঁদে ফেলতে না পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে রিপন মিয়া (২২) নামের এক বখাটে পরিকল্পিতভাবে ছুরিকাঘাতে ক্ষতবিক্ষত করেছে এক গৃহবধূকে।

বাধা দেয়ায় গৃহবধূর শ্বশুরকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। পরে স্থানীয়রা গৃহবধূ ও তার শ্বশুরকে উদ্ধার করে দ্রুত রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়।

রোববার বিকেল ৪টার দিকে নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা তেলির মোড় নামক স্থানে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ রিনা (২১) ও তার শ্বশুর আব্দুল মজিদ (৫০) জানান, গৃহবধূ তার বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুরকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীর বাড়ি যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে দাঁতভাঙ্গা তেলির মোড়ে পৌঁছামাত্র ওঁৎপেতে থাকা বখাটে রিপন ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কোপাতে থাকে গৃহবধূকে। এসময় সঙ্গে থাকা শ্বশুর আব্দুল মজিদ তাকে বাধা দিলে তাকেও কুপিয়ে জখম করে। এ অবস্থায় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে বখাটে রিপন পালিয়ে যায়।

আহতরা আরো জানায়, রিনা খাতুন অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় ওই বখাটে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতো। তার অত্যাচারে বাধ্য হয়ে রিনাকে বিয়ে দেন তার বাবা মা।

রৌমারীর শান্তির চর গ্রামের বাছের আলী অভিযোগ করেন, বখাটের অত্যাচারে বাধ্য হয়ে গেল বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি মেয়েকে বিয়ে দেই একই উপজেলার টাপুরচর গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে হারেজ আলীর (২৪) সঙ্গে। রিনাকে বিয়ে দেয়ায় আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ওই বখাটে। বিয়ের সাতদিনের মাথায় রিপন নামের ওই বখাটে তার সহকর্মীদের নিয়ে রাতের অন্ধকারে রিনার শ্বশুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে তুলে নেয়ার চেষ্টা করে। এসময় রিনার স্বামী হারেজ আলীকেও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এঘটনায় থানায় মামলা হলে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয় বখাটে। কিছুদিন আগে জেল থেকে জামিনে বের হয়ে আসে রিপন। এরপর পরিকল্পিতভাবে হামলার ঘটনা ঘটানো হয়।

বখাটে রিপন মিয়ার বাবা নুরু মিয়া টাপুরচর গ্রামের বাসিন্দা। অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে নুরু মিয়া বলেন, ‘আমার ছেলে মেয়েটিকে ভালোবেসে বিয়ে করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা অন্যত্র বিয়ে দিয়ে অন্যায় করেছে। আর এ কারণে আমার ছেলে একের পর এক ঘটনা ঘটাচ্ছে। তাছাড়া ছেলে এখন আমার কথা শোনে না।’

নির্যাতিত গৃহবধূর শ্বশুর আব্দুল মজিদ অভিযোগ করে বলেন, ‘ওই বখাটে আমার বউ মাকে ও আমার ছেলেকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। আমরা এখন খুবই ভয়ে আছি।’বাংলামেইল

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts