September 19, 2018

ফ্রি ওয়াইফাই, হ্যাকারদের ফাঁদ!

ঢাকাঃ  শহরের এখানে সেখানে মেলে ফ্রি ওয়াইফাই। ফ্রি ওয়াইফাই জোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য তরুণ-তরুণীদের ভিড় লেগেই থাকে। কিন্তু আপনি জানেন কি, ফ্রি ওয়াইফাই জোনে আপনি হ্যাকারদের কবলে পড়তে পারেন। হ্যাকাররা হাতিয়ে নিতে পারে আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

নর্টনস সাইবার সিকিউরিটি ইনসাইট রিপোর্ট বলছে, অধিকাংশ অনামী ফ্রি ওয়াইফাই হ্যাকারদের ফাঁদ। বেশিরভাগই ওয়াইফাইয়ের মধ্যে হ্যাক হচ্ছে বলে দাবি রিপোর্টের।

ইন্টেল সিকিউরিটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর জগদীশ মহাপাত্র জানিয়েছেন, অনেক প্রোমোশনাল লিঙ্কের মধ্যে দিয়ে হ্যাকাররা নজরদারি চালায়।

বিশেষ করে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত প্রোমোশনাল লিঙ্কের মাধ্যম দিয়ে চুরি করতে পারে স্মার্টফোনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

ফ্রি পার্সওয়ার্ড ওয়াইফাইয়ে অনেক সময় ‘অথেনটিকেশনের’ সমস্যা হয়। ফ্রি ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে ফায়ারশিপের মাধ্যমে চুরি হয়ে যেতে পারে আপনার মোবাইল তথ্য।

ওয়াইফাইয়ের মাধ্যমে হ্যাকারদের আর এক ধরনের প্রচলিত ফাঁদ হল ম্যান ইন দ্য মিডল অ্যাটাক। অ্যাকসেস পয়েন্ট থেকে আপনার স্মার্টফোন, এই নেটওয়ার্কের মাঝে হ্যাকাররা রাউটারের মাধ্যমে অনায়াসে চুরি করতে পারে যেকোনো তথ্য।

সাইডজ্যাকিং আর এক ধরণের ফ্রি ওয়াইফাই হ্যাকিং পদ্ধতি যেখানে আনএনক্রাপ্টেড কুকি মাধ্যমে চুরি হয়ে যেতে পারে মেইল, ফেসবুক পার্সওয়ার্ড।

কীভাবে বাঁচবেন এইসব হ্যাকারদের কাছ থেকে? বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, অচেনা, পার্সওয়ার্ড ছাড়া ফ্রি ওয়াইফাই থেকে দূরে থাকুন। ফ্রি ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক কানেক্টের সময় ল্যাপটপে ফাইল শেয়ারিং নিষ্ক্রিয় করে রাখুন। এমন কী স্মার্টফোনের নেটওয়ার্ক।

Related posts