April 19, 2019

ফেসবুকে তোলপাড়; মার্কিন তরুণীর ছবি অপপ্রচার!

‘ফুল ব্রাইট স্কলারশিপ’ নিয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন মার্কিন তরুণী পলিন শুমেকার। ছিলেন নয় মাস। জনপ্রিয় টিভি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র ঈদের অনুষ্ঠানে একটি পর্বে অংশও নিয়েছিলেন তিনি। শাড়ি পরে দেশের সাধারণ মানুষের সঙ্গে ছবিও তুলেছেন। সেই ছবি আমেরিকান দূতাবাসের ফেসবুক পেইজে প্রকাশিত হয়েছিল। এখন এই ছবিকে নিয়ে চলছে তুলকালাম। ছবিটি ব্যবহার করে একটি খবর প্রকাশ করেছে কয়েকটি অনলাইন মিডিয়া। খবরের শিরোনামে ওই তরুণীর নামও পরিবর্তন করে দেওয়া হয়েছে। খবরটির শিরোনাম, ‘বাংলাদেশি রিকশাচালকের সততায় মুগ্ধ হয়ে তাকে বিয়ে করলেন মার্কিন তরুণী ব্রাউন।’ এ খবর প্রকাশের সঙ্গে-সঙ্গে বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিটি ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, মার্কিন দূতাবাসের ফেসবুক পেইজে দেওয়া তাদের স্ট্যাটাসে এই ছবিটি সম্পর্কে পরিষ্কারভাবে লেখা রয়েছে, ‘আমেরিকান ফুলব্রাইট শিক্ষার্থী পলিন শুমেকার তার নয় মাস বাংলাদেশে অবস্থানকালে এ দেশের সংস্কৃতি ও মানুষের সংস্পর্শে আসেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশের একটি গ্রামে শাড়ি পরে তিনি রিকশা ভ্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।’

অনলাইনে বিভ্রান্তিকর খবর কিংবা গুজব প্রতিরোধে কাজ করছে একটি ফেসবুক পেইজ। পেইজের নাম ‘সতর্ক থাকুন, দায়িত্বের সাথে শেয়ার করুন।’ পেইজটি জানাচ্ছে, ‘মার্কিন এই নারীর নাম পলিন শুমেকার। তিনি আমেরিকান বৃত্তি পেয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন। অনলাইনের মিথ্যে নিউজে এই মেয়েটির নামও বদলে ফেলে করা হয়েছে ব্রাউন। আর রিকশাচালকের নাম দেওয়া হয়েছে মোখলেস। যার পুরোটাই ভুয়া।’ তারা এই জাতীয় খবর শেয়ার করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন সবাইকে।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, গত ১৪ ডিসেম্বর রেডিও ধামাকা ছবিটি প্রকাশ করে ভুল বানানে শিরোনাম দেয়, ‘সিলেটের রিক্সাচালক মকলেচের প্রেমে পড়েছেন এক আমেরিকার যুবতি। বিয়ে করে সংসারও শুরু করে দিয়েছেন তারা। কপাল কারে কয়….!!!।’

তারা মার্কিন দূতাবাসের ফেসবুক পেইজ থেকে এই ছবিটি সংগ্রহ করেন। এর পর থেকেই বিভ্রান্তির শুরু।

গত বৃহস্পতিবার থেকে এই ছবি এবং এ সংক্রান্ত মিথ্যা সংবাদ বাংলাদেশের ফেসবুক কমিউনিটির শীর্ষ আলোচ্য বিষয় ছিল। রেডিও ধামাকার ফেসবুক পেইজে গিয়ে দেখা যায়, তারা এখনও ছবিটি অপসারণ করেননি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts