November 13, 2018

ফের বাংলাদেশিকে গুলি মিয়ানমার সীমান্তবাহিনীর

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে বাংলাদেশি যুবক জয়নাল আহাম্মদকে গুলি করে হত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই আরও এক বাংলাদেশিকে গুলি করেছে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি)। তবে ঘটনার পর থেকে গুলিবিদ্ধ যুবক নিখোঁজ রয়েছেন। বিজিপি সদস্যরা আহত বা নিহত অবস্থায় তাকে সীমান্তের ওপারে নিয়ে গেছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার দোছড়ি ইউপির জারুলীয়াছড়ি এলাকার ৪৬ ও ৪৭নং সীমান্ত পিলার সংলগ্ন জিরো পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানান, মঙ্গলবার দুপুরে মো. আলম ও সৈয়দ আলম নামে স্থানীয় দুই যুবক বিজিপির গুলিতে নিহত জয়নাল আহাম্মদের লাশের সন্ধানে ৪৬ ও ৪৭নং সীমান্ত পিলার সংলগ্ন জিরো পয়েন্টে যান। এ সময় সীমান্তের ওপার থেকে বিজিপির সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে মো. আলম পালিয়ে যান। তবে গুলিবিদ্ধ হয়ে সৈয়দ আলম নিখোঁজ রয়েছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নূর হোসেন জানান, সীমান্ত এলাকায় নিহত জয়নাল আহাম্মদের লাশ খুঁজতে গেলে বিজিপির সদস্যরা বিনা উস্কানীতে গুলি চালায়। এতে সৈয়দ আলম গুলিবিদ্ধ হলেও তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বিজিপি সদস্যরা তাকেও আহত বা নিহত অবস্থায় সীমান্তের ওপারে নিয়ে গেছে বলে তার ধারণা করছেন তিনি।

কক্সবাজার বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আনিছুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার পর বিজিপিকে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তারা বাংলাদেশি যুবক হত্যা ও লাশ নিয়ে যাওয়ার ঘটনা অস্বীকার করেছে। এরপরও ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ঘটনা পর থেকেই সীমান্ত এলাকায় অতিরিক্ত বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, বিজিবির টহল জোরদার করায় সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।

এর আগে, সোমবার উপজেলার দোছড়ি ইউপির জারুলীয়াছড়ি এলাকার ৪৬ ও ৪৭নং সীমান্ত পিলার সংলগ্ন জিরো পয়েন্টে ক্ষেতে কাজ করার সময় জয়নাল আহাম্মদ নামে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যার পর লাশ নিয়ে যায় বিজিপি। তবে ঘটনার দুই দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত লাশ ফেরত দেয়নি তারা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts