November 19, 2018

ফের ওয়াশিংটনকে আঙ্কারার হুঁশিয়ারি!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বিতর্কিত তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লা গুলেনের জন্য দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বলি না দিতে ওয়াশিংটনকে বলেছে আঙ্কারা। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রকে এভাবেই সতর্ক করেছে তুরস্ক।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

১৫ জুলাই তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থানচেষ্টা হয়। ওই অভ্যুত্থানচেষ্টার জন্য গুলেনকে দায়ী করে আসছে তুর্কি সরকার। বিচারের মুখোমুখি করার জন্য গুলেনের প্রত্যার্পণ চায় আঙ্কারা।

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে তুরস্কের বিচারমন্ত্রী বাকির বোজদাগ মঙ্গলবার বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র যদি গুলেনকে হস্তান্তর না করে, তা হলে তারা একজন সন্ত্রাসীর জন্য তুরস্কের সঙ্গে সম্পর্ক বলি দেবে।’

৭৫ বছর বয়সী গুলেনকে ফেরত দেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে বারবার চাপ দিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক। অন্যদিকে অভিযোগের বিষয়ে তুরস্কের কাছে অকাট্য তথ্য-প্রমাণ চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রথম থেকেই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন গুলেন। শুক্রবার গুলেনের এক আইনজীবী বলেন, অভিযোগের বিষয়ে তুর্কি সরকার বিন্দু পরিমাণ প্রমাণও হাজির করতে ব্যর্থ হয়েছে।

অনেকটা খোঁচা মেরে তুর্কি বিচারমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সহিংসতার জন্য দায়ী কোনো ব্যক্তিকে যদি তুরস্ক থাকতে দিত, তাহলে ওয়াশিংটনের প্রতিক্রিয়া কেমন হতো!

বাকির বোজদাগ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি গুলেনকে হস্তান্তর না করে, তাহলে দুই দেশের সম্পর্কের ওপর তার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

তুর্কি মন্ত্রী বলেন, গুলেন ইস্যুতে তুরস্কে যুক্তরাষ্ট্রবিরোধী মনোভাব সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। এই মনোভাব ঘৃণায় রূপ নেওয়ার আগেই ওয়াশিংটনের কিছু করা উচিত।

Related posts