November 18, 2018

ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় বিশ্বনাথে যুবলীগ নেতার উপর হামলার অভিযোগ

26.04.18-1বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: আসন্ন উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনে নিজেকে ‘সভাপতি’ পদপ্রার্থী ঘোষণা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে নিজের আইডিতে একটি স্ট্যার্টাস আপলোড করায় সিলেটের বিশ্বনাথে ফারুক মিয়া (৩৫) নামের এক যুবলীগ নেতার উপর হামলা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত যুবলীগ নেতা উপজেলার সদর ইউনিয়নের মিরেরচর-১ গ্রামের আয়না মিয়ার পুত্র। এঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন হামলার শিকার হওয়া যুবলীগ নেতা।

বুধবার বিকেলে সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলা সদরের জবান উল্লা মার্কেটের সামনে যুবলীগ নেতা ফারুকের উপর ‘উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আশিক আলী, যুবলীগ নেতা আমির আলী ও জয়নাল মিয়া’ হামলা করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। হামলায় আহত যুবলীগ নেতা ফারুককে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর তার অবস্থার অবনতি হলে সাথে সাথে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। জানা গেছে, আহত ফারুক ও হামলা করার অভিযোগে অভিযুক্ত সবাই একই গ্রুপের (যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলয়ের) অনুসারী।

আহত যুবলীগ নেতা ফারুক মিয়া জানান, ২৪ এপ্রিল রাতে ‘উপজেলা যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী’ ঘোষণা করে নিজের ফেইসবুক আইডিতে তিনি একটি স্ট্যার্টাস দেন। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে পুবালী ব্যাংকে তার (ফারুক) লোনের টাকার কিস্তি জমা দিতে যাওয়ার পথিমধ্যে তার গতি রোধ করে ‘উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আশিক আলী, যুবলীগ নেতা আমির আলী ও জয়নাল মিয়া’ তার (ফারুক) উপর হামলা চালান। এসময় হামলাকারীরা ফারুক মিয়ার সাথে থাকা তার ফেইসবুক চালিত মোবাইল সেট, নগদ ৬০ হাজার টাকা ও দুই ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন লুঠপাট করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও তিনি সাংবাদিকদেরকে জানিয়েছেন।

হামলা করার অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা দাবি করে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আশিক আলী বলেন, এবিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। তার উপর আনিত অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা, উল্টো ফারুক’কে দেখতে গিয়ে তাকে গাল শুনতে হয়েছে। ফারুকের উপর হামলা করার কথা অস্বীকার করেছেন উপজেলা যুবলীগ নেতা আমির আলী।

ঘটনার পর আহত যুবলীগ নেতা ফারুক মিয়া থানায় এসে নিজের অবস্থা পুলিশকে দেখিয়ে গেছেন বলে জানিয়ে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, লিখিত অভিযোগ ফেলে এব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related posts