November 15, 2018

ফুরফুরে মেজাজে ক্ষমতাসীন আ’লীগ নেতারা!

ঢাকাঃ  সদ্য সমাপ্ত পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থীদের নিরঙ্কুশ বিজয়ের পর অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতারা। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থীদের ফল বিপর্যয় ঘটেছিল। রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের বেশিরভাগ পৌরসভায়ই জয় পেয়েছিলেন বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থীরা। প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে রাজশাহী, রংপুর, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের ফলাফল নিয়ে অনেকটাই শঙ্কায় ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ২২৭টি পৌরসভা নির্বাচনে ১৬৮টি জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থীরা। আর বিএনপি মনোনীত প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন ১৯টি পৌরসভাতে।

শনিবার রাতে জাতীয় সংসদ ভবনে আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক এমপি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন ক্ষমতাসীন দলটির বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতা। পৌরসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় নিয়ে একে অপরকে অভিনন্দন জানান নেতারা।

বর্ষীয়াণ রাজনীতিক আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, মোহাম্মদ নাসিম, ওবায়দুল কাদের পৌরসভায় নির্বাচনে ভাল ফলাফলের জন্য আওয়ামী লীগের বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকদের ধন্যবাদ জানান।

রাত সাড়ে নয়টার দিকে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক ও সাঈদ খোকন। মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা হাজী মোহাম্মদ সেলিম এমপি এবং জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন এসময় অনুষ্ঠান থেকে বের হচ্ছিলেন। সাঈদ খোকনকে দেখা মাত্র হাজী সেলিম বলেন, মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এই প্রথমবারের মতো দেখা হলো দুই নেতার।

তাই হাজী সেলিম হিন্দি গানের কলি গেয়ে উঠলেন, “দেখা হে পেহেলিবার” মিলন বলে উঠলেন, আমি ভি প্রথম দেখা পেলাম মেয়রের। উল্লেখ্য ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এমপি পদ থেকে পদত্যাগ করে মেয়র পদে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন হাজী সেলিম। পরে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের অনুরোধে নির্বাচন করেননি হাজী সেলিম। কিন্তু মিলন জার্তীয় পার্টির সমর্থিত মেয়র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করে পরাজিত হন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts