November 18, 2018

ফিল্মি কায়দায় ডাকাতি, ৫ মিনিটেই ৩৫০ ভরি!

ঢাকাঃ গাজীপুরে এক স্বর্ণের দোকানে ফিল্মি কায়দায় স্বর্ণ লুটের ঘটনা ঘটেছে। হাতবোমা ফাটিয়ে মাত্র ৫ মিনিটে লুট করা হয়েছে ৩৫০ ভরি স্বর্ণ।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইয়াকুব আলী সুপার মার্কেটের সঙ্গীতা জুয়েলার্সে এ ঘটনা ঘটে।

স্বর্ণের ওই দোকানে ডাকাতিকালে কমপক্ষে ১৫-২০টি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

এ সময় ডাকাতদের মারধরে দোকান মালিকের ছেলে সুব্রত দাস (৩২), কর্মচারী নয়ন (৩০), বোমার স্প্লিন্টারের আঘাতে ট্রাকচালক সাগর ও হেলপার সাজু আহত হন। আহতদের স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার সময় ডাকাতরা মার্কেটের সামনে মহাসড়কের ওপর একের পর এক হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মহাসড়ক ও আশপাশের দোকানগুলো মুহূর্তের মধ্যে বন্ধ হয়ে যায়।

দোকানে বসে থাকা এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ৮ জনের পিস্তলধারী ডাকাতদল ওই জুয়েলারিতে প্রবেশ করে। তারা তাকে, দোকানের দুই নারী ক্রেতা ও চার কর্মচারীর বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে জিম্মি করে ফেলে। পরে তারা সেলফে সাজিয়ে রাখা স্বর্ণালঙ্কার লুট করে। এ সময় লুটেরাদের দুজন দোকানের সিন্দুক ভাঙার চেষ্টা করে।

দোকান মালিক শঙ্কর চন্দ্র দাস জানান, তার দোকান থেকে কমপক্ষে ৩৫০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট হয়েছে।

তিনি বলেন, তার ছেলেসহ চার কর্মচারী দোকানে ছিল। এসময় বাধা দিতে গেলে তার ছেলে সুব্রতকে মারধর করা হয়। প্রায় পাঁচ মিনিটের মধ্যে মালামাল স্বর্ণাঙ্কার লুট করে ময়মনসিংহের দিকে পালিয়ে যায় তারা।

দোকান পরিদর্শনে যাওয়া শ্রীপুর থানার এসআই হেলাল উদ্দিন বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দা সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

Related posts