September 25, 2018

‘ফিঙ্গার প্রিন্ট ছাড়া চট্টগ্রাম বন্দরে প্রবেশ নয়’

চট্টগ্রাম : আগামী সপ্তাহ থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে প্রবেশের সময় প্রত্যেকের তথ্য সংগ্রহ করে ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়া হবে। কালো গ্লাস ব্যবহৃত কোনো যানবাহন প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

সাম্প্রতিক দেশের বিভিন্ন স্থানে জঙ্গি তৎপরতার ঘটনায় দেশের প্রধান চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ।

চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (অ্যাডমিন অ্যান্ড প্ল্যানিং) মো. জাফর আলম রাইজিংবিডিকে জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রতিক জঙ্গি তৎপরতার প্রেক্ষাপটে চট্টগ্রাম বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও ঢেলে সাজানো হচ্ছে। এখন যে কেউ চাইলেই যে কোনো মুহূর্তে বন্দর এলাকায় প্রবেশ করতে পারবেন না। আগামী সপ্তাহ থেকে বন্দর এলাকায় প্রবেশের সময় প্রত্যেকের প্রয়োজনীয় সব তথ্য লিপিবদ্ধ করা হবে। নেওয়া হবে ফিঙ্গার প্রিন্ট।

গত সোমবার থেকে কালো গ্লাসের সব ধরনের যানবাহন বন্দর এলাকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলেও জানান বন্দর সদস্য জাফর আলম।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি ঢাকার গুলশানে ঘটে যাওয়া সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিবেচনায় বন্দর অভ্যন্তরে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে বন্দরে প্রবেশকারী ব্যক্তি ও যানবাহনের পরিচয় নিশ্চিত করতে বিশেষ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে বন্দর চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম খালেদ ইকবাল জানান, চট্টগ্রাম বন্দরের নিরাপত্তা বাড়ানোর পাশাপাশি বাড়ানো হচ্ছে মনিটরিং কার্যক্রমও। বন্দর এলাকায় বর্তমানে ১২৮টি সিসিটিভি ক্যামেরা থাকলেও নিরাপত্তার স্বার্থে পর্যায়ক্রমে ৮০০ সিসিটিভি ক্যামরা লাগানো হবে। এ ছাড়া বন্দর এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে যেসব নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে বন্দর অভ্যন্তরে প্রবেশের সময় প্রত্যেককে নিজের পরিচয়পত্র বহন করতে হবে। নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সদস্যদের কাছে পরিচয় প্রকাশ ও প্রয়োজনে বৈধ পরিচয়পত্র দেখাতে হবে।

নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সদস্যরা যাতে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে সেজন্য ধৈর্য সহকারে, ইতিবাচক এবং সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান বন্দর চেয়ারম্যান।

Related posts