November 18, 2018

ফতুল্লায় সেপটিক ট্যাঙ্কে পড়ে মৃত্যু-এর সংখ্যা বাড়িয়ে ৩

রফিকুল ইসলাম রফিক, নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মোল্লা সল্ট ইন্ডাষ্ট্রি’র সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে ৩ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ হয়েছে আরো ৭ শ্রমিক। অসুস্থদের মধ্যে ৩ জনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের শহরের খানপুরে অবস্থিত ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার ধর্মগঞ্জ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহতেরা হলো- পটুয়াখালী জেলার তালি তাবুনিয়া কলাপাড়া এলাকার নিজামউদ্দিনের ছেলে শাহাবুদ্দিন(৩৮) ও একই জেলার মাছুয়াখালী খেপুপাড়া এলাকার নাসির তালুকদারের ছেলে আলমাছ(২৮)। তবে নিহত অপর শ্রমিক ইব্রাহিমের পুরো ঠিকানা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুর দুইটার দিকে সদর উপজেলার ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ মোল্লা সল্ট ইন্ড্রাষ্ট্রিজে(লবন কারখানা) সেপটিক টাঙ্ক পরিস্কার করতে নামে ১০ শ্রমিক। এসময় সেপটি ট্যাঙ্কের বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে ওই শ্রমিকরা অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদেরকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে শহরের খানপুরে অবস্থিত ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুই শ্রমিক শাহাবুদ্দিন(২৮) ও আলমাছ(৩২) কে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ইব্রাহিম, জাহাঙ্গীর, অলি এবং মাসুদকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শ্রমিক ইব্রাহিমের মৃত্যু হয়। অসুস্থ ৪ শ্রমিকের মধ্যে দুই শ্রমিকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এবং অপর দুই শ্রমিককে প্রাথমিক চিকিৎসা  দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

অসুস্থ কারখানার শ্রমিক জাহিদ ও তৈয়ব জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে তারা ১০ জন ভেতরে নামেন। এক পর্যায়ে ট্যাঙ্কের গভীরে নামলে বিষাক্ত গ্যাসে তারা আক্রান্ত হন। এসময় তারা শ্বাসকষ্টের যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকেন। এসময় অন্যান্য শ্রমিকরা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

শহরের খানপুরে অবস্থিত ৩শ’ শয্যা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক তাহমিনা নাজনীন জানান, বিষাক্ত গ্যাস শ্বাসনালীতে চলে যাওয়ায় ওই দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থদের মধ্যে জনকে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। অপর দুই শ্রমিক জাহিদ ও তৈয়বকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কামাল হোসেন জানান, সেপটি ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে গিয়ে খানপুর হাসপাতালে দুই জন এবং ঢাকা মেডিকলে কলেজ হাসপাতালে ১ জন মোট ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৯ মে ২০১৬

Related posts