November 21, 2018

প্রাণীজগতের বৈচিত্র্য জানলে চমকে উঠবেন আপনিও!

প্রাণীজগতে

মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। এছারাও আল্লাহপাক ১৮,০০০ মাখলুকাত তৈরি করেছেন। অর্থাৎ, আমাদের পৃথিবীতে ১৮,০০০ ধরণের জীব বৈচিত্র্য রয়েছে। বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন সময় এসকল প্রাণী নিয়ে গবেষণা করে মজাদার তথ্য বের করে। নিম্নে সেসকল মজাদার তথ্য নিয়ে আলোচনা করা হল-
– কুকুরের ঘ্রাণশক্তি মানুষের চেয়ে ২৮,০০০ গুণ বেশি।
– প্রাণীদের মধ্যে বিড়ালই সবচেয়ে বেশি ঘুমায় (দৈনিক ১৮ঘন্টা)।
– একমাত্র স্ত্রী মশাই মানুষের রক্ত খায়।
– মাছি মিনিটে ৮ কিলোমিটার উড়তে পারে।
– পুরুষ ব্যাঙই বর্ষকালে ডাকে,আর তা শুনে কাছে আসে স্ত্রী ব্যাঙ ।
– হামিং বার্ড পাখি পিছনের দিকে উড়তে পারে ।
– গিরগিটি একই সময়ে তার চোখ দুটি দুই দিকেই নাড়তে পারে ।
– টিকটিকি এক সঙ্গে ৩০টি ডিম পাড়ে ।
– মাছ চোখ খোলা রেখে ঘুমায় ।
– একমাএ পিঁপড়েই কোনদিন ঘুমায় না।
– সিডকা পোকা একটানা ১৭ বছর মাটির নিচে ঘুমায় । তারপর মাটি থেকে বেড়িয়ে এসে চিৎকার করতে করতে ৩ দিনের মাথায় মারা যায় ।
– সিংহের গর্জন ৫ মাইল দূর থেকেও শোনা যায়।
– অনেকের ধারণা হাঙ্গর মানুষকে হাতের কাছে পেলে মেরে ফেলে। কিন্তু মানুষের হাতেই বেশী হাংগর মারা পড়েছে।
– কাচ আসলে বালু থেকে তৈরী।
– আপনি প্রতিদিন কথা বলতে গড়ে ৪৮০০টি শব্দ ব্যবহার করেন। বিশ্বাস না হলে পরীক্ষা করে দেখতে পারেন।
– আপনি ৮ বছর ৭ মাস ৬ দিন একটানা চিৎকার করলে যে পরিমান শক্তি খরচ হবে তা দিয়ে এক কাপ কফি অনায়েসে বানানো যাবে।
– একটি রক্ত কনিকা আমাদের পুরো দেহ ঘুরে আসতে সময় নেয় ২২ সেকেন্ড।
– আপনার যদি একটা তারকা গুনতে ১ সেকেন্ড সময় লাগে তাহলে একটি গ্যালাক্সির সব তারকা গুনতে সময় লাগবে প্রায় ৩ হাজার বছর।
– অনেকের ধারণা শামুকের দাঁত নেই। অথচ শামুকের ২৫ হাজার দাঁত আছে।
– চোখ খুলে হাঁচি দেয়া সম্ভব না।
– বিড়াল ১০০ রকম শব্দ করতে পারে অথচ কুকুর পারে ১০ রকম।
– পৃথিবীর প্রাণীদের মধ্যে ৮০ ভাগই পোকামাকড়।
– একটি তেলাপোকা তার মাথা ছাড়া ৯ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। এরপর তারা সাধারণত খাদ্যাভাবে মারা যায়|

Related posts