September 22, 2018

‘প্রস্তাব পেলেই যে দৌড় দিতে হবে এমন নয়’

718
টিভি মিডিয়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম। আরেক পরিচয় লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয় করে আসছেন। আর সুঅভিনয়ের কল্যাণে পেয়েছেন তারকাখ্যাতিও। যা আঁকড়ে ধরে এখনও নিয়মিত কাজ করছেন মম। মিডিয়া জগতে যাত্রা শুরুর পর থেকে টিভি নাটকেই বেশি পাওয়া গেছে তাকে। ২০০৭ সালে তৌকীর আহমেদের পরিচালনায় ‘দারুচিনি দ্বীপ’ ছবির মধ্যদিয়ে মূলত রুপালি পর্দায় নাম লেখান মম। এতে অসাধারণ অভিনয় করে এদেশের লাখো দর্শকের মন জয় করেন এ অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্রের মতো পুরস্কারও। কিন্তু এখানেই থেমে গিয়েছিলেন মম। চলচ্চিত্রে আর দেখা মেলেনি তার। অনেক ভক্তেরই প্রশ্ন ছিল মম কেন নিজেকে চলচ্চিত্র থেকে গুটিয়ে নিলেন। কিন্তু শেষতক জানা গেছে, মম গুটিয়ে নেননি। নিজেকে প্রস্তুত করেছেন। সেজন্য সময় নিয়েছেন ৭ বছর। এ লম্বা সময়ে বাণিজ্যিক ধারার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করেছেন।

এমন কথাই জানিয়েছিলেন যখন ৭ বছর পর ২০১৪ সালে চলচ্চিত্রে প্রত্যাবর্তন ঘটেছে মমর। এসেই ধামাকা। দু-দুটি ছবিতে অভিনয়। দুটিই মুক্তি পেয়েছে ধারাবাহিকভাবে। আর নিজের সাফল্যের ধারাবাহিকতা? সেটাও ধরে রেখেছেন মম। বিশেষত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘ছুঁয়ে দিলে মন’-এ তার সফলতা লক্ষ্য করা গেছে। গ্রাম থেকে মফস্বল এমনকি শহরের সব অলি গলিতে শিহাব শাহীনের পরিচালনায় এ ছবির প্রশংসা শোনা গেছে। হালের ক্রেজ আরেফিন শুভর সঙ্গে দারুণ কেমেস্ট্রি দেখিয়ে দর্শককে মম জানান দেন নিজের যোগ্যতার কথা। গেল বছর এপ্রিলে মুক্তি পাওয়া ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ ছবির পর আবারও বিরতিতে গেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ অভিনেত্রী। এখন তিনি টিভি নাটকেই সরব। নতুন চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ব্যাপারেও কিছু জানাচ্ছেন না মম। তাহলে কি চলচ্চিত্রের আর অভিনয় করবেন না এ অভিনেত্রী? এসব প্রশ্ন তার অগণিত ভক্তের। সেসব প্রশ্নে উত্তরও দিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, আমি অভিনেত্রী। চলচ্চিত্রে হোক কিংবা নাটকে হোক। সেটা নিয়মিত চালিয়ে যাবো। চলচ্চিত্রের বিষয়টি তো এতটা সহজ ব্যাপার নয়। বুঝেশুনে এগুতে হয়। ভালো গল্প, নির্মাতা এসব আগে প্রাধান্য দেয়া উচিত। আমি সেই অপেক্ষায় আছি।

ব্যাটে বলে মিললে তবেই আবার চলচ্চিত্রে আসবো। এদিকে আগমী ২৬শে ফেব্রুয়ারি তার অভিনীত ছবি ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ মুক্তি পাচ্ছে কলকাতায়। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও মমর অভিনয় কারিশমা দেখবেন দর্শক। এ নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত এ অভিনেত্রী। তিনি বলেন, এটা খুবই ভালো একটি সংবাদ। আমাদের দেশের চলচ্চিত্র বাইরেও প্রদর্শন হচ্ছে। তাহলে বুঝতে হবে এদেশের চলচ্চিত্র দিনদিন উন্নতির দিকে যাচ্ছে। এটা আমাদের জন্য সত্যিই আশীর্বাদ। এ মুহূর্তে দেশের একাধিক অভিনয়শিল্পী কলকাতার ছবিতে নিয়মিত অভিনয় করছেন। বিশেষত যৌথ প্রযোজনার ছবিতে দেখা যাচ্ছে তাদের। সেক্ষেত্রে মমর কি ইচ্ছা? তিনি জানান, প্রস্তাব পেলেই যে দৌড় দিতে হবে এমন নয়। আমি অভিনেত্রী। তাই গল্প ও পরিচালক এসব ব্যাপার আগে মাথায় রাখতে হবে। আর ভালো পরিচালকের ওপর আমি নির্ভরশীল। কারণ, একজন পরিচালকই আমার মেধার মূল্যায়ন করতে পারবেন। এদিকে আসছে ভালোবাসা দিবস ও ঈদ উপলক্ষে নাটক এবং টেলিছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত মম।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts