November 17, 2018

প্রধানমন্ত্রী নেই, তাই সংসদ হলো আড্ডাখানা!

ঢাকাঃ  আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে জাতীয় সংসদের ২০১৬-১৭ সালের বাজেট আলোচনায় মনোযোগ না দিয়ে একে অপরের সঙ্গে আলাপচারিতায় মত্ত হয়ে পড়েন সংসদ সদস্যরা।

বুধবার (১৫ জুন) জাতীয় সংসদে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদ সদস্যরা বাজেটের ওপর বক্তৃতা দিলেও সেদিকে মনোযোগ দিতে দেখা যায়নি অধিকাংশ সাংসদকে।

সকালে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে সংসদে চাঞ্চল্য থাকলেও ১২টায় প্রধানমন্ত্রী বের হয়ে যাওয়ার পর সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিবেশ তৈরি হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় সংসদের অধিবেশন শুরু হয়।

দুপুর দেড়টার দিকে ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল হাই বাজেটের ওপর বক্তব্য শুরু করলে সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ নিজ আসন থেকে উঠে গিয়ে ঘুরে ঘুরে সংসদ সদস্যের সঙ্গে আলাপচারিতায় মেতে উঠেন। এ সময় আলাপে মেতে উঠতে দেখা যায় শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, রেজাউল করিম হিরাসহ সিনিয়র নেতাদের।

এ আলাপচারিতায় কোনো অংশে পিছিয়ে ছিলেন না বিরোধী দলের নেতারাও। বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী, জিয়াউদ্দিন বাবলু ও কাজী ফিরোজ রশীদকে দীর্ঘ সময় গল্প করতে দেখা গেছে।

অন্যদিকে, ভোলা- ৩ আসনের নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের বক্তব্যের সময় পেছনের সারিতে থাকা আওয়ামী লীগের সাংসদ শামসুল হক টুকু, নাঈমুর রহমান দুর্জয়ও পাশের জনের সঙ্গে আড্ডায় মেতে ওঠেন।

এদিকে, দুপুর সাড়ে ১২টায় থেকে দীর্ঘ সময় নিজের আসন ছেড়ে এসে আওয়ামী লীগ নেতা আমীর হোসেন আমুর সঙ্গে আলাপাচরিতায় ব্যস্ত ছিলেন জাসদের মঈন উদ্দীন খান বাদল। আর একই সময়ে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদকে সাবেক ভূমিমন্ত্রী রেজাউল করীম হিরা ও সংসদ সদস্য আলী আশরাফের সঙ্গে আলাপচারিতায় ব্যস্ত থাকতে দেখা গেছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ১৫ মে ২০১৬

Related posts