September 24, 2018

প্রথম ওভারের দুই উইকেটই জেতালো ইংল্যান্ডকে

553
হাসান মুকুল,চট্টগ্রামঃ   স্যাম কারেনের প্রথম ওভারটিই কাল হয়ে শেষ পর্যন্ত দাঁড়ালো ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য। ওই ওভারে দুটি উইকেট পতনের ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি ক্যারিবীয় যুবারা।

শুক্রবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংলিশ যুবারা। নির্ধারীত ৫০ ওভারে ২৮৩ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সামনে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়। ওভারপ্রতি গড়ে প্রায় ৬ রানের লক্ষ্যে ছুটতে গিয়ে প্রথম ওভারেই দুই উইকেট হারিয়ে বসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাঁহাতি বোলার স্যাম কারেনের দ্বিতীয় বলেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ক্যারিবীয় ওপেনার টেভিন ইমল্যাচ। দুই বল পরে শিমরন হেটমেয়ারকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন কারেন।

শূন্য রানে দুই উইকেট পতনের পর তৃতীয় জুটিতে ৮৪ রান যোগ করেন কিয়েচি কার্টি ও গিডর্ন পোপ। ১৯ ওভারের শেষ বলে ৬০ রান করে পোপ আউট হলে ভেঙে যায় ‘মানিকজোড়’; এক রান পরেই সাজঘরে ফিরেন কার্টি। দলীয় ১০৩ রানে পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটলে ক্যারিবীয়দের বিপদ ঘনীভূত হয়।  তবে ষষ্ট উইকেট জুটিতে জেড গুলি ও কিমো পল মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ৯০ রান। মিডল ওর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান যতক্ষণ ক্রিজে ছিলেন জয়ের স্বপ্ন দেখছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দলীয় ১৯৩ রানে গুলি বিদায় নিলে একা হয়ে পড়েন পল। কিছুক্ষণ পর দলীয় ২২১ রানে পল বিদায় নিলে পরাজয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় ক্যারিবীয়দের। ১৯৩ থেকে ২২১ এই ২৮ রানের মধ্যেই বাকী চারটি উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের যুবারা।

ইংল্যান্ডের পক্ষে সাকিব মাহমুদ ৪টি উইকেট তুলে নেন; এছাড়া স্যাম কারেন ও ড্যান লরেন্স দুটি করে উইকেট পান। অপর উইকেটটি নেন ম্যাসন ক্রেন।

এর আগে শুক্রবার সকালে টস জিতে ব্যাটিং করতে নামা ইংল্যান্ড ডেন লরেন্স ও ক্যালাম টেলরের হাফ সেঞ্চুরিতে ভর করে ২৮২ রান সংগ্রহ করে। ইংলিশদের জন্য বেশ ভালো সূচনা করেন দুই ওপেনার লরেন্স এবং ম্যাক্স হোল্ডেন। নবম ওভারের পঞ্চম বলে হোল্ডেন আউটের আগে ৪৩ রান তোলে ইংল্যান্ডের যুবারা। এরপর ৪১, ৬২, ৫০ ও ৬৭ রানের চারটি মধ্যম আকারের জুটি বড় সংগ্রহ এনে দেয় ইংলিশদের। দলের পক্ষে লরেন্স ৫৫,  বার্নহাম ৪৪, টেলর ৫৯, বার্টলেট ৪৮ ও কারেন ৩৯ রান করে অবদান রাখেন। শেষের দিকে দ্রুত রান তোলতে পারলে ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় তৈরি ইংল্যান্ডের সংগ্রহটা আরও বড় হতে পারতো।

আজকের ম্যাটটিসহ দুই ম্যাচে শতভাগ জয়ে চার পয়েন্ট পাওয়া ইংল্যান্ড ‘সি’ গ্রুপে শীর্ষে রয়েছে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts