December 18, 2018

প্রতিবাদে শ্রমিকদের বিকেএমই কার্যালয় ঘেরাও মিছিল

ফাইল ছবি।

রফিকুল ইসলাম রফিক                             
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
পাওনা না দিয়ে ঈদের আগে ৬৫ জন শ্রমিককে ছাটাই করে দিয়েছে বিকেএমইএ এর প্রথম সহ-সভাপতি আসলাম সানি। তার মালিকানাধীন ক্রনি গার্মেন্টে এ ঘটনা ঘটে। শ্রমিকরা পাওনা পরিশোধের দাবীতে রোববার বিকেলে নগরীর চাষাঢ়ায় অবস্থিত বিকেএমইএ’র কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছে গার্মেন্ট শ্রমিক।

ক্রনি গার্মেন্ট এর নিটিং সেকশনের শ্রমিকদের অভিযোগ আগে তাদের পারিশ্রমিক ছিলো পোশাক প্রতি ৪৩ থেকে ৪৫ টাকা। কোন ঘোষণা ছাড়াই গত ৭ জুন তাদের বেতন প্রদানের দিন পারিশ্রমিক কমিয়ে ২৮ থেকে ৩০ টাকায় নামিয়ে পারিশ্রমিক প্রদান করা হয়। বিষয়টি লিখিতভাবে গার্মেন্ট কতৃপক্ষকে জানিয়ে প্রতিবাদ জানান শ্রমিকরা। তারা বিষয়টি বিকেএমইএ ও প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরকেও লিখিতভাবে অবহিত করেন। ৯ জুন আকস্মিকভাবে প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন মালিক আসলাম সানি। ১২ জুন ৫৭ জনকে ও পরে আরো আটজন শ্রমিককে ছাটাই করা হয়। এরপর একে একে ৬৫ জন শ্রমিককে ডেকে নিয়ে পাচ-ছয় হাজার করে ধরিয়ে দিয়ে বের করে দেয়া হয়। ১৮ জুন পাওনা পরিশোধের কথা বলে গার্মেন্ট এ ডেকে নিয়ে মালিকের লোকজন প্রথমে পাঁচ হাজার টাকা দেয়।

শ্রমিকদের দাবী সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ছাটাই করলে পাওনা হয় বিশ হাজার টাকার বেশি। আর চাকরি থাকলে পাওনা নয় হাজার টাকা। ঈদের বোনাসটাও দেয়নি। এখন বিকেএমইএ থেকে ঈদের বোনাস হিসেবে তিন হাজার আর ছাটাই বেনিফিট হিসেবে আরো এক হাজার টাকা নেয়ার জন্য ডেকেছে।

বিকেল তিনটা থেকে পাচটা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় প্রেসক্লাব ভবনে অবস্থিত বিকেএমইএ কার্যালয় ঘেরাও করে রাখে। পরে তারা নগরীতে একটি মিছিল বের করেন।

ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়নি বিকেএমইএ’র সহ-সভাপতি (অর্থ) জি এম ফারুক। তিনি জানান, বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা হচ্ছে। মালিক বিকেএমইএতে আছেন। সে শ্রমিকদের পাওনা দিতে চায়। মালিক শ্রম আইন অনুযায়ী পাওনা দিতে যাচ্ছেনা।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি ৩ জুন ২০১৬

Related posts