September 21, 2018

প্রতিদিন ডাল কেন খাবেন?

প্রকাশ : ২ এপ্রিল ২০১৬, আয়েশা সিদ্দিকাঃ পুষ্টিতে ভরপুর সুপার খাবারগুলো মধ্যে অন্যতম হলো ডাল। খাবারটিতে চর্বি কম থাকে, আবার প্রোটিনেরও সমৃদ্ধ উৎস। এতে প্রচুর পরিমাণে মিনারেল, ভিটামিন, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং তন্তু রয়েছে। প্রতিদিন ডাল খেলে শরীরে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের চাহিদা পূরণ হওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যও ভালো থাকে। নিয়মিত ডাল খেলে তা দীর্ঘ সময় ধরে পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। ফলে ক্ষুধাও কম লাগে, যা ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে। এটি সারাদিন আমাদের সক্রিয় রাখতে সাহায্য করে। শুধু তাই নয়, এটি হজমে সাহায্য করার পাশাপাশি বিভিন্ন সংক্রমণ রোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

এবার জেনে নিন কেন ডায়েটে প্রতিদিন ডাল রাখবেন-

মৃত্যুঝুঁকি কমিয়ে আনে
প্রতি কাপ ডাল ১৮ গ্রাম চর্বিহীন প্রোটিন সরবরাহ করে। এটি প্রোটিনের সমৃদ্ধ উৎস এবং এবং এতে কোন কোলেস্টেরল নেই। তাই নিয়মিত চর্বিহীন প্রোটিন খেলে তা ক্যান্সার এবং হার্ট অ্যাটাকের মতো রোগের হাত থেকে রক্ষা করে মৃত্যুঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

হজমে সাহায্য করে
ডালে দ্রবণীয় এবং অদ্রবণীয় তন্তু রয়েছে, যা হজমে সাহায্য করে। এছাড়া কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতেও সাহায্য করে এটি।

হার্টকে সুরক্ষা দেয়
ডালে প্রচুর পরিমাণে ফলেট এবং ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে, যা হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ফলিক অ্যাসিড ধমনীর প্রাচীরকে সুরক্ষা দেয় এবং ম্যাগনেসিয়াম রক্তের প্রবাহের উন্নতি ঘটায়।

অ্যানিমিয়ার ঝুঁকি কমায়
এক কাপ ডাল নারী এবং পুরুষের উভয়ের শরীরের দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় আয়রনের চাহিদা পূরণ করে থাকে। আয়রন শরীরের রক্তের কোষগুলোর উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ায়। একইসঙ্গে অ্যানিমিয়ার ঝুঁকি কমাতেও সাহায্য করে খাবারটি।

সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে
মিনারেল এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের মতো বিভিন্ন উপাদান বিশেষ করে আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম এবং জিঙ্কের সমৃদ্ধ উৎস হলো ডাল। এই খাবারটি বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। এছাড়া এতে ভিটামিন এ এবং সি এর মতো এমন কিছু অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে, যা কোষের ফ্রি র্যাডিক্যালগুলোকে ধ্বংস করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে
ডালে সেলেনিয়াম নামে এমন এক উপাদান রয়েছে, যা প্রদাহ রোধে সাহায্য করে। এছাড়া এই খাবারটি টিউমারের বৃদ্ধি রোধ করে এবং ঘাতক টি কোষের উৎপাদন কমিয়ে আনতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ফলে ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সহজ হয়। তাই ক্যান্সারের হাত থেকে বাঁচতে আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় ডাল রাখা উচিত।

Related posts