September 20, 2018

প্রকল্পের কাজ না করেই জোর করে স্বাক্ষর আদায়, ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা!

মোঃ আজিজুর রহমান ভূঞা
বাবুল, ময়মনসিংহ ব্যুরোঃ
ময়মনসিংহের ঈশরগঞ্জ উপজেলার মগটুলা ইউনিয়নে প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন না করেই ইউপি সচিবের কাছ থেকে জোর করে ব্যাংক চেকে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগে চেয়ারম্যানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ঈশরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত বৃপস্পতিবার (১৮ আগষ্ট ) রাতে মগটুলা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ আব্দুল আউয়াল ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণ ও সচিবের অভিযোগে প্রকাশ, মগটুলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ বদরুজ্জামান মামুন গত বুধবার সোনালী ব্যাংক ঈশ^রগঞ্জ শাখার চলতি হিসাব নং ২০২০১৮১১৪-পাঁচটি ব্যাংক চেক পাঠান ওই ইউপি সচিব মোঃ আব্দুল আউয়াল এর কাছে। চেকগুলোতে মোট টাকার পরিমান ছিল আট লাখ।

স্থানীয় সরকার সহায়তা প্রকল্প -২ এর দ্বিতীয় কিস্তির এ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন প্রতিবেদন প্রাপ্ত না হওয়ায় সচিব চেক স্বাক্ষরে অসম্মতি প্রকাশ করলে তাকে (সচিব) ইউপি ভবনের ভেতরে এক দফা লাঞ্চিত করা হয়। পরে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ বদরুজ্জামান মামুন,ইউপি সদস্য মোঃ আশকর আলী, আব্দুল মান্নান, আব্দুর রহিম, মোঃ সুলেমান ও মেম্বার আব্দুল মান্নানের ছেলে লোকমান হোসেন ওই সচিবকে ভয়ভীতি ও মারধর করার এক পর্যায়ে জোর করে পাঁচটি খালি চেকে স্বাক্ষর নিয়ে নেয়।

অবিযুক্ত চেয়ারম্যান মোঃ বদরুজ্জামান মামুন মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,ইউপি সচিব মোঃ আব্দুল আউয়াল জামায়াত কর্মী। সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্থ করতে এসব কাজ করছে। এলজিএসপি বাস্তবায়ন করেই সচিবের সাক্ষরের জন্য চেক পাঠানো হয়েছিল।

ঈশরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ বদরুল আলম খাঁন বলেন, সরকারি কাজে বাধা প্রদান, সচিবকে লাঞ্চিত ও মারধর করে ব্যাংক চেকে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগে মামলা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts