November 19, 2018

পুলিশের ধাওয়ায় মৃত্যু; জনতার পিটুনিতে পুলিশ নিহত

রফিকুল ইসলাম রফিক
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে পুলিশের ধাওয়ায় পুকুরে পড়ে আব্দুল মতিন নামের এক পান ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনার বিক্ষুব্ধ জনতার ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও মারপিট করলে আরিফুজ্জামান নামের পুলিশের এক কনস্টেবলের নিহত হয়েছে। নিহত মতিন মাদক ব্যসায়ী বলে পুলিশ দাবী করলেও এলাকায় এর কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে উপজেলার রাইজদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, বুধবার বিকেলে সোনারগাঁও থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ফখরুল ইসলাম ও কনস্টেবল আরিফুজ্জামান আরিফ এক আসামীর পরিচয় অনুসন্ধানের মোটর সাইকলযোগে রাইজদিয়া এলাকায় যায়। এসময় স্থানীয় পান ব্যবসায়ী আব্দুল মতিন গরুর খড় কুটো কাটার সময় এ এসআই ফখরুল পেছন থেকে তার গায়ের উপর মোটর সাইকেল তুলে দেয়। আব্দুল মতিন ভয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যেতে পাশের পুকুরে লাফিয়ে পড়ে। পানি থেকে উঠে এসে কেন তাকে ধাক্কা দেয়া হলো এ নিয়ে পুলিশের সাথে কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তি হয়।

এ সময় পুলিশ তাকে হ্যান্ডকাপ পড়ানো চেষ্টা করলে মতিন পানিতে লাফ দেয়। তখন পানিতে লাফিয়ে পড়া কনষ্টেবল আরিফের সাথে ধস্তাধস্তির এক পযার্য়ে আব্দুল মতিন তলিয়ে যায়। কিছুক্ষন পর তার লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয় লোকজন বিক্ষুদ্ধ হয়ে পুলিশ কনস্টেবল আরিফকে ধাওয়া করে। জনতা আরিফের দিকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে সে পানিতে লাফিয়ে পড়ে। পড়ে সে পুকুর থেকে উঠে দৌঁড়ে যাওয়ার সময় লোকজন আবার তাকে মারপিট করে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। স্থানীয় লোকজন ও নিহতের পরিবার জানিয়েছে, মতিন পান ব্যবসায়ী। পুলিশ তার বিরুদ্ধে মাদক বিক্রির মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে। নিহত আব্দুল মতিন ওই এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) এস এম মঞ্জুর কাদের জানান, নিহত আব্দুল মতিন মাদক ব্যবসায়ী। মাদক বিরোধী অভিযানকালে পুলিশ দেখে ভয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুকুরে পড়ে ডুবে তার মৃত্যু হয়েছে। উত্তেজিত জনতা ইটপাটকেল নিক্ষেপে ও পানিতে ডুবে কনস্টেবল আরিফুজ্জামান আরিফের মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিহত কনস্টেবল আরিফুজ্জামান আরিফ মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা সুশনদা গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে।

Related posts