September 23, 2018

পুলিশের গতিবিধি জানতে জুয়াড়িদের সিসি ক্যামেরা!

ভারত ডেস্কঃ বেআইনি জুয়ার আসর বসে সেখানে। পুলিশ ব্যাপারটা জানলেও বার কয়েক আকস্মিক অভিযান চালিয়ে কারও টিকিটির নাগাল পায়নি। রহস্যটা কী? পরে জানা গেল, স্থানীয় অপরাধীরা ক্লোজড সার্কিট টেলিভিশন (সিসিটিভি) ক্যামেরা বসিয়ে পুলিশের গতিবিধি নজরদারি করে।
এ ঘটনা ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির দক্ষিণ অংশের আলিশান এলাকা বসন্তগাঁওয়ের। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার সুবিধার্থে দিল্লি পুলিশের রয়েছে সিসিটিভি নেটওয়ার্ক। কিন্তু তাদের চোখে ধুলো দিতে অপরাধীদের এ রকম পাল্টা নজরদারির অভিনব ব্যবস্থা দেখে পুলিশও হতবাক। ব্যাপারটা জানতে পেরে তারা জুয়াড়িদের গা ঢাকা দেওয়ার একটি জায়গায় অভিযান চালানোর উদ্যোগ নেয়। কিন্তু তাতে বাদ সাধলেন ওই জুয়াড়ি চক্রের আশ্রয়দাতা হিসেবে পরিচিত এক নারী। হয়রানির অভিযোগ তুললেন পুলিশের বিরুদ্ধেই। ফলে তাঁর বাড়িতে ঢুকতে পারেনি পুলিশ। বিফল হয়ে তারা থানায় ফিরে যায় এবং বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানায়।
এ বিষয়ে দিল্লি পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) ঈশ্বর সিং বলেন, পুলিশের কোনো সদস্য জোর করে ওই বাড়িতে ঢুকলে তারা (অপরাধী) সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখিয়ে চাঁদাবাজি বা নারীদের হয়রানির অভিযোগ আনতে পারে। কিন্তু সেখানে জুয়াড়িদের আড্ডা, মাদক বিক্রি প্রভৃতি অপরাধ হয় বলে পুলিশের কাছে তথ্য রয়েছে। ওই বাড়ির বাসিন্দা এক নারী অপরাধীদের মদদ দিচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
দক্ষিণ অংশের পর এবার দিল্লির অন্যান্য এলাকায়ও অপরাধী চক্র এ ধরনের সিসিটিভি ক্যামেরা বসিয়েছে কি না, অনুসন্ধান করছে পুলিশ।

Related posts