November 16, 2018

পুরোহিত হত্যার দায় সরকার এড়াতে পারে না : বিএনপি

Global bnp

নিউজ ডেস্ক:পঞ্চগড়ের সন্তগৌড়ীয় মঠের প্রধান পুরোহিত ও অধ্যক্ষ জগেশ্বর রায়কে হত্যার দায় সরকার এড়াতে পারে না বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি। দলটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভোটারবিহীন সরকার বিরোধী দল দমনে ব্যস্ত থাকায় গণবিরোধী চরমপন্থি শক্তিগুলো কোথায় আস্তানা গাড়ছে- তা চিহ্নিত করতে পারছে না। বিদেশী নাগরিকদের হত্যা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা, ব্লগার, প্রকাশকসহ কোন হত্যাকাণ্ডেরই এখন পর্যন্ত সুরাহা করতে পারেনি সরকার। তাই এই হত্যার দায় সরকার এড়াতে পারে না। গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন। পঞ্চগড়ের পুরোহিত হত্যার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, যারা এই জঘন্য নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে তারা সভ্যতা, সংস্কৃতি ও মানবতার শত্রু। পশু শক্তিতে বলীয়ান হয়ে এরা অন্ধকারে বিচরণ করে। এদের কাছে সম্প্রীতি, সহানুভুতি ও সহমর্মিতার মানবীয় কোন গুণাবলীই নেই। গহীন অন্ধকারের দিকে দেশকে ঠেলে দেয়াই হচ্ছে এদের চূড়ান্ত লক্ষ্য। মির্জা আলমগীর বলেন, বর্তমানে অপশাসনের এক ভয়াল নৈরাজ্যের মধ্যে দেশবাসী দুঃসময় অতিক্রম করছে। একদিকে যেমন মানুষের জানমালের কোন নিরাপত্তা নেই অন্যদিকে মানুষের বাক-ব্যক্তি ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই। গণতন্ত্রকে নির্বাসনে পাঠানোর জন্য বিরোধী দলের রাজনৈতিক অধিকার এখন অবলুপ্ত। মানুষের ভোটাধিকারকে সম্পূর্ণরূপে অপহরণ করা হয়েছে। কারণ ভোটারবিহীন সরকার বিরোধী মত দমনে ব্যস্ত থাকার জন্যই দেশের ভয়ঙ্কর গণবিরোধী চরমপন্থি শক্তিগুলো কোথায় আস্তানা গাড়ছে তা চিহ্নিত করতে পারছে না। বরং সরকার উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর অপকৌশল নিয়েছে। তিনি বলেন, ইতিপূর্বে বিদেশী নাগরিকদের হত্যা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা, ব্লগার, প্রকাশকসহ কোন হত্যাকাণ্ডেরই এখন পর্যন্ত সুরাহা করতে পারেনি সরকার। সুতরাং ঘাতক অন্ধশক্তি তাদের ডালপালা বিস্তার করে একের পর এক প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে এবং গুরুতর জখম করছে। অথচ জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সাইপ ইন্টিলেজেন্স গ্রুপ বারবার যারা দায় স্বীকার করেছে তাদের বার্তার কথা উল্লেখ করলেও সরকার এই খবরের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। সুতরাং ইতালীয় নাগরিক তাভেলা থেকে শুরু হওয়া গতকাল পঞ্চগড় পর্যন্ত যত খুন জখম ঘটেছে তাতে সরকারের ভূমিকা নিয়ে জনমনে এক বিশাল প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আসলে এই রক্তাক্ত দুস্কর্মের পেছনে নেপথ্য শক্তি কারা? বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, আবহমানকাল ধরে এদেশের মানুষ অতিথিবৎসল। এদেশের মানুষের কোন অংশই কোন বিদেশি নাগরিককে হত্যা করতে পারে না। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের এক উজ্জ্বল ঐতিহ্য। ভয়ঙ্কর কোন কুচক্রী গোষ্ঠীর মদদেই হাতে গোনা নির্বিবেক কাণ্ডজ্ঞানহীন বিপথগামীরাই এই নৃশংস দুস্কর্মগুলি সংঘটিত করছে। সরকার এর দায় কোনভাবেই এড়াতে পারে না। অবিলম্বে হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি। –

Related posts